ট্যাংকলরির ধাক্কায় প্রাণ গেল সংগীতশিল্পীর

প্রকাশ: ১০ এপ্রিল ২২ । ১৯:০২ | আপডেট: ১০ এপ্রিল ২২ । ১৯:০২

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

আশরাফুন নাহার মিম

কুড়িগ্রামে তেলবাহী ট্যাংকলরির ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী সংগীতশিল্পী আশরাফুন নাহার মিম (১৮) নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন চালক গিটারিস্ট বিপুল আহমেদ (৩০)। তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রোববার বিকেল ৩টার দিকে জেলা শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের পার্শ্ববর্তী কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কে দুর্ঘটনায় এই হতাহতের ঘটনা ঘটে বলে নিশ্চিত করেছেন সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মো. শাহরিয়ার।

চিলমারী উপজেলার থানাহাট ইউনিয়নের আকন্দপাড়া এলাকার শামীম ফুয়াদ হাসান ফুয়াদের সঙ্গে একই উপজেলার সবুজপাড়ার আশরাফুন নাহার মিমের সঙ্গে গত বছরের ৩ সেপ্টেম্বর বিয়ে হয়েছিল। তারা দু’জনেই সংস্কৃতিচর্চার সঙ্গে জড়িত।

শামীম ফুয়াদ হাসান জানান, তার স্ত্রী মিম জেলা শহরের সরদারপাড়ায় ভাড়াবাড়িতে তার মায়ের সঙ্গে ছিল। এ অবস্থায় রোববার সকালে চিলমারী থেকে তিনি কুড়িগ্রামে এসে ধরলা নদীর পাড়ে শুটিংয়ের কাজ করেন। এ সময় দুপুর ১টা ৪৭ মিনিটে মোবাইল ফোনে মিমের সঙ্গে তার সর্বশেষ কথা হয়। মিম তখন তাকে ইফতার করতে বাসায় যেতে বলে। এছাড়া কাপড় সেলাই করার জন্য বাইরে যাবে বলে জানায়। তারপর দুর্ঘটনার খবর পান।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, আশরাফুন নাহার মিম সহকর্মী গিটারিস্ট বিপুল আহমেদের সাথে মোটরসাইকেলে চড়ে খলিলগঞ্জের দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালের পার্শ্ববর্তী ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সামনে কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কে রংপুরগামী তেলবাহী ট্যাংকলরি তাদের পেছন দিক থেকে ধাক্কা দিলে মিম ছিটকে পড়ে যায়।

এ সময় ট্যাংকলরির চাকা তার ওপর দিয়ে গেলে ঘটনাস্থলে মিমের মৃত্যু ঘটে। আর চালক বিপুল আহমেদ গুরুতর আহত হন। আহত বিপুল আহমেদ জেলা শহরের মধুর মোড় এলাকা নুর ইসলামের পুত্র বলে জানা গেছে।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান মো. শাহরিয়ার জানান, সুরতহাল রিপোর্ট তৈরির পর মিমের মরদেহ থানায় আনা হয়েছে। ঘাতক ট্যাংকলরিটি আটক করা হয়েছে। এখন পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com