আল-আকসা ঘিরে ইসরায়েলি-ফিলিস্তিনি সংঘর্ষের কারণ কী?

প্রকাশ: ১৮ এপ্রিল ২২ । ১৭:৪২ | আপডেট: ১৮ এপ্রিল ২২ । ১৭:৪৮

অনলাইন ডেস্ক

ইসরায়েলের অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ইসরায়েলি পুলিশের সাথে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের আবারও সংঘর্ষ হয়েছে যাতে ২০ জন আহত হয়েছে বলে খবর দিচ্ছে বার্তা সংস্থা এএফপি। 

স্থানীয় সময় রোববার ফজরের নামাজের পর ইসরায়েলি পুলিশ সেখানে অভিযান চালিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। সেসময় ফিলিস্তিনিদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। খবর বিবিসির। 

এর আগে শুক্রবার আল আকসা মসজিদ চত্বরে ইসরায়েলি পুলিশের অভিযানে ১৫২ জন ফিলিস্তিনি আহত হয়েছেন। তিনশর মতো ফিলিস্তিনিকে আটক করা হয়েছে।

আল-আকসা কেন বিবাদের ইস্যু

মুসলিম এবং ইহুদি, দুই ধর্মাবলম্বীদের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ পবিত্র স্থান হিসেবে বিবেচিত আল আকসা মসজিদ ঐতিহাসিকভাবে বিবাদের ইস্যু।

দুই ধর্মাবলম্বীরাই এটিকে নিজেদের বলে দাবি করে। আর সেটি নিয়ে বহু যুগ ধরে ইসরায়েল, ফিলিস্তিন এবং মুসলিম বিশ্বের দ্বন্দ্ব।

মুসলিমদের জন্য তৃতীয় গুরুত্বপূর্ণ ধর্মীয় স্থান এটি। মসজিদ চত্বর মুসলিমদের কাছে হারাম-আল-শরীফ হিসেবে পরিচিত।

ইহুদি ধর্মাবলম্বীরা আল আকসা মসজিদ ও তার আশপাশের অংশকে 'টেম্পল মাউন্ট' হিসেবে অভিহিত করে থাকে এবং তাদের জন্য এটি বিশ্বের সবচাইতে পবিত্র স্থান।

মসজিদ চত্বরে ইসরায়েলি পুলিশের অভিযান সম্পর্কে হুঁশিয়ারি দিয়ে ফিলিস্তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘এই অপরাধ এবং এর পরিণতির জন্য তারাই (ইসরায়েল) সরাসরি এবং সম্পূর্ণরূপে দায়ী।’

'ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র এবং তাদের পবিত্র মসজিদ রক্ষায়' শুক্রবার সেখানে হাজারে হাজারে ফিলিস্তিনিদের জড়ো হওয়ার জন্য ডাক দেয়া কয়েকটি গোষ্ঠী। এরপরই সেখানে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সাম্প্রতিক সময়ে অধিকৃত পশ্চিম তীরে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান এবং সংঘর্ষ বৃদ্ধি পেয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার পশ্চিম তীরের জেনিন অঞ্চলে ইসরায়েলি নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানে ১৭ বছর বয়সী এক ফিলিস্তিন কিশোর আহত হওয়ার পর শুক্রবার তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

ওইদিন তেল আভিভে একজন ফিলিস্তিনির হাতে তিনজন ইসরায়েলির মৃত্যুর পর পশ্চিম তীরের জেনিন অঞ্চলকে কেন্দ্র করে ফিলিস্তিনিদের উপর নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযান বৃদ্ধি পেয়েছে। যার জেরে এ পর্যন্ত কুড়িজন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন।

দুই সপ্তাহের মধ্যে ফিলিস্তিনি এবং ইসরায়েলি আরবরা এ নিয়ে চতুর্থবারের মতো ইসরায়েলিদের উপর হামলা চালিয়েছে।

গত বছর আল আকসা মসজিদকে ঘিরে কয়েক সপ্তাহের সংঘর্ষের এক পর্যায়ে গাজার নিয়ন্ত্রণে থাকা হামাস জেরুজালেমকে লক্ষ করে রকেট ছুঁড়েছিল। এরপর এগারো দিন ধরে যুদ্ধ চলে।

শুক্রবার 'পাসওভার' উৎসব পালনের অংশ হিসেবে ইহুদি ধর্মাবলম্বীরাও আল আকসা চত্বরে 'ওয়েস্টার্ন ওয়াল' হিসেবে পরিচিত অংশে প্রার্থনা করছিলেন।

মুসলিমদের পবিত্র রমজান মাস, ইহুদি ধর্মাবলম্বীদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ এই উৎসব এবং খ্রিস্টানদের ইস্টার একই সাথে পড়ে যাওয়ায় সব ধর্মাবলম্বীরাই এসময় আল আকসা চত্বরে প্রবেশ করছেন।

নয়দিনব্যাপী চলা 'পাসওভার' উৎসবের সময় আল আকসায় ইহুদিদের প্রবেশ অনেক বেড়ে যায়। এই সময় এমনিতেই এক ধরনের উত্তেজনা বিরাজ করে।

বার্তা সংস্থা এএফপি জানাচ্ছে উত্তেজিত পরিস্থিতিতে রবিবার ইহুদিদের পুলিশি বেষ্টনীর মধ্যে আল আকসা চত্বর থেকে বের হতে দেখা গেছে।

নতুন করে ইসরায়েলিদের অভিযান বৃদ্ধি পাওয়া পরিস্থিতি আরো সংঘাতময় হয়ে ওঠার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৯১১০৩০৫৫৭, +৮৮০১৯১৫৬০৮৮১২ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com