এটিএম বুথে টাকা তুলতে কিছু ক্ষেত্রে বিড়ম্বনা

ঈদের ছুটিতে ব্যাংকিং সেবা

প্রকাশ: ০৬ মে ২২ । ০০:০০ | আপডেট: ০৬ মে ২২ । ১০:৩৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

সমকাল প্রতিবেদক

ঈদের বন্ধে এটিএম বুথ থেকে টাকা তুলতে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়েছেন অনেকে। বুথে টাকা না থাকা কিংবা নেটওয়ার্ক সমস্যার কারণে এ অবস্থা হয়। গ্রাম বা শহর সব জায়গায় কিছু ক্ষেত্রে এমন বিড়ম্বনার তথ্য পাওয়া গেছে। অবশ্য এখন এক ব্যাংকের গ্রাহক আরেক ব্যাংকের বুথ থেকে টাকা তোলার সুযোগ পান। আবার আকস্মিক ঘোষণায় ঈদের আগে শনিবার সারাদেশে ব্যাংক খোলা ছিল। এসব কারণে বড় কোনো সংকটের খবর পাওয়া যায়নি।


ঢাকার খিলগাঁও এলাকায় ঈদের আগে বেসরকারি একটি ব্যাংকের বুথে কয়েক দফা গিয়েও টাকা তুলতে পারেননি গ্রাহকরা। কখনও এটিএম বুথে টাকা নেই এবং কখনও বাড়তি চাপের কারণে নেটওয়ার্ক সমস্যা হয়েছে। ঈদের আগে মতিঝিলের কোনো কোনো বুথ থেকে টাকা তুলতে না পারার খবর পাওয়া গেছে। চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ বাজারে পাশাপাশি দুটি ব্যাংকের এটিএম বুথ রয়েছে। ঈদের আগের দিন দুটি বুথ থেকেই টাকা তুলতে পারেননি কেউ।


জানতে চাইলে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম সমকালকে বলেন, ঈদের বন্ধে এটিএম বুথে পর্যাপ্ত টাকা রাখা ও নিরাপত্তা জোরদারের বিষয়ে আগ থেকেই বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল। এবার বড় ধরনের বিপর্যয়ের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।


ব্যাংকাররা জানান, নিজ ব্যাংক ছাড়াও অন্য ব্যাংকের বুথ ব্যবহার করে এখন টাকা তুলতে পারেন গ্রাহক। ঢাকা শহরে একই ব্যাংকের একাধিক বুথ থাকলেও অনেক থানা এলাকায় সব মিলিয়ে হয়তো একটি বা দুটি ব্যাংকের বুথ রয়েছে। শহরের মানুষ গ্রামে যাওয়ায় ঈদের সময় এসব বুথ থেকে টাকা তোলার চাপ বাড়ে। আর এ ক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি ব্যবহার হয় ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের বুথ। দেশজুড়ে ব্যাংকটির চার হাজার ৭৬৬টি এটিএম বুথ রয়েছে। সব ব্যাংক মিলে যেখানে বুথ আছে ১২ হাজার ৮৯০টি।

এদিকে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১২টা থেকে আগামী ৮ মে রোববার রাত ১২টা পর্যন্ত ব্যাংকটির এটিএম সেবা বন্ধ থাকবে। এর আগে গত ২৮ এপ্রিল রাত থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত বন্ধ ছিল এক্সিম ব্যাংকের সব সেবা। সারাদেশে ব্যাংকটির ২০৮টি এটিএম বুথ রয়েছে।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com