ভোলায় হাসপাতালের ছাদ থেকে পড়ে প্রাণ গেল শ্রমিকের

প্রকাশ: ১৬ মে ২২ । ১৮:৩৩ | আপডেট: ১৬ মে ২২ । ১৮:৩৩

ভোলা প্রতিনিধি

নিহতের স্ত্রীর আহাজারি

ভোলা সদর হাসপাতালের নির্মাণাধীন ভবনের ৮ তলার ছাদ থেকে পড়ে রিপন নামের এক নির্মাণশ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুর পৌনে ১২টায় ভবনের অষ্টম তলার ছাদ ঢালাইয়ের সময় পড়ে তার মৃত্যু হয়। নিরাপত্তা বেল্ট বা মাথায় হেলমেট ছাড়া কাজ করানোর কারণে রিপনকে প্রাণ দিতে হয়েছে বলে অভিযোগ স্বজনদের।

পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানান, ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট ভোলা জেনারেল হাসপাতালের নতুন ভবনের ৮ম তলায় কিডনি ডায়ালাইসিস ও আইসোলেশন ইউনিট নির্মাণের কাজ চলছে। সোমবার বেলা পৌনে ১২টায় নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ ঢালাইয়ের সময় অসতর্ক থাকায় রাজমিস্ত্রি রিপন (৩০) নিচে পড়ে যায়। তাৎক্ষণিক হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ভর্তি করলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে রিপনের মৃত্যুর খবরে তার স্ত্রী ও স্বজনরা হাসপাতালে ছুটে আসেন এবং কান্নায় ভেঙে পড়েন। স্বজনদের অভিযোগ, এতো উঁচুতে কাজ করলেও শ্রমিকদের কোনো নিরাপত্তা সরঞ্জামাদি দেওয়া হয়নি। ছিল না পর্যাপ্ত নিরাপত্তা-ব্যবস্থাও।

স্থানীয় রাজমিস্ত্রি সরদার মিজানের মাধ্যমে এক দিন আগে ওই ভবনে কাজ করতে আসেন রিপন। তার বাড়ি পার্শ্ববর্তী দৌলতখান উপজেলার চরপাতা গ্রামে। বাবার নাম দাইমুদ্দিন মোল্লা। স্ত্রী শাহিনা বেগম জানান, তাদের তিন বছরের একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। স্বামীর মৃত্যুতে মেয়েকে নিয়ে অসহায় হয়ে পড়েছেন তিনি।   

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. লোকমান হাকিম জানান, নিহত রিপনের শরীরে কোনো নিরাপত্তা সরঞ্জাম ছিল না। দুর্ঘটনার বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নিতে তিনি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে লিখিতভবে জানাবেন। লাশের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ভোলা থানার এসআই জসিম উদ্দিন জানান, ময়নাতদন্ত শেষে পুলিশ আইনি ব্যব্যস্থা নেবেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com