অন্যদৃষ্টি

ছাত্রলীগে নিড়ানি জরুরি

প্রকাশ: ১৭ মে ২২ । ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মিজান শাজাহান

কৃষিকাজে ব্যবহূত 'নিড়ানি'র সঙ্গে শহরে বেড়ে ওঠা পাঠকরা পরিচিত নাও হতে পারেন। বাংলা চলচ্চিত্র 'গলুই' দেখতে দর্শকদের উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যাচ্ছে সিনেমা হলগুলোতে। শহরে বেড়ে ওঠা তরুণরা কি 'গলুই'-এর অর্থ বোঝে? আমরা যারা গ্রাম থেকে এসেছি তারা অনেকেই নদীতে নৌকায় চড়েছি; নৌকার গলুইয়ে বসেছি। নৌকার সামনে বা পেছনের সরু অংশকে গলুই বলে। 'নিড়ানি' দেখতে অনেকটা দাবা বটির মতো। এটা দিয়ে ফসলের মাঠে আগাছা উচ্ছেদ করা হয়। আগাছা অপসারণ না করলে ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়; কাঙ্ক্ষিত ফলন আসে না। আগাছা অপসারণের পাশাপাশি নিড়ানি দিয়ে মাটি আলগা করে দেওয়া হয়। এতে জমির উর্বরতা বাড়ে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগে নিড়ানি অভিযান প্রয়োজন। এতে প্রাণ ফিরে পাবে ঐতিহ্যবাহী সংগঠনটি।

'চিরুনি অভিযান' পরিচিত বিশেষণ হলেও নিড়ানি অভিযানের কথা এ কারণে বললাম- কোনো কোনো নেতা ও প্রশাসনের কর্মকর্তা বিভিন্ন প্রসঙ্গে চিরুনি অভিযানের কথা বললেও তা কার্যকর হয়নি। ফলে এই 'চিরুনি অভিযান' বিশেষণটি অবৈজ্ঞানিকভাবে ব্যবহূত অনেক অ্যান্টিবায়োটিকের মতো কিংবা 'বিএনপির ঈদের পর আন্দোলন'-এর মতো কার্যকারিতা হারিয়েছে। সম্প্রতি ইডেন কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণার পরই সেই রাতে ক্যাম্পাসে পদধারীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়েছে পদবঞ্চিতরা। অভিযোগ উঠেছে, বয়স্ক ও বিবাহিতদের কেউ কেউ নতুন কমিটিতে পদ পেয়েছে।

ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্রে স্পষ্টভাবে বলা আছে, বয়স হতে হবে সর্বোচ্চ ২৯ বছর। তাহলে কীভাবে বিবাহিত ও বয়স্করা কমিটিতে আসে- তার জবাব কি কেন্দ্রীয় কমিটি দিতে পারবে? বিতর্কিত কর্মকাণ্ডের অভিযোগে কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে অপসারণ করে তৎকালীন সিনিয়র সহসভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়কে সভাপতি ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্যকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। তাদের দায়িত্বের সময়ে ইডেন কলেজের দু'জন নেত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ এলেও ব্যবস্থা নিতে পারেননি। উল্টো তাদের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় কমিটির অনেক নেতা অভিযোগ তুলেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে আরও কিছুকাল পদ আঁকড়ে রাখার কৌশল হিসেবে সম্মেলন পেছানোর।

১৬ মে একটি সংবাদমাধ্যমের শিরোনাম '১০ ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে পাঞ্জাবি লুটের অভিযোগ।' ২১ ও ২৩ এপ্রিল রাজধানীর শাহবাগে আজিজ সুপার মার্কেটে ৬টি কাপড়ের দোকান থেকে ৫০ হাজার টাকা সমমূল্যের পাঞ্জাবি এবং অন্যান্য পোশাক কোথাও টাকা না দিয়ে আবার আংশিক দিয়ে নিয়েছেন ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অভিযুক্ত কর্মীরা। সিসি ক্যামেরার ফুটেজে এ রকম আটজনকে শনাক্ত করা হয়েছে। ৮ এপ্রিল ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মনির হোসেন সুমন পরীক্ষার হলে ফেসবুক লাইভ করে বলেছেন '...আমরা ছাত্রলীগ, যেখানে যাব সেখানেই বুলেট।' যদিও সুমনকে ছাত্রলীগ থেকে ঘটনার পর বহিস্কার করা হয়েছে। ৮ মে রাজশাহীতে র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন পিস্তল হাতে ভাইরাল পাবনার সুজানগরের মানিকহাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহসভাপতি আবু বক্কার সিদ্দিকী রাতুল। তাকেও ছাত্রলীগ ভাইরাল হওয়ার পর বহিস্কার করেছে।

যুব মহিলা লীগ নেত্রী পাপিয়ার মতো সংবাদ হওয়ার পর বহিস্কার না করে আগেই নিড়ানি অভিযান চালানো দরকার। যেন অতি উৎসাহী হয়ে নিউমার্কেটের মতো সংঘর্ষে জড়িয়ে আর কোনো ছাত্রনেতাকে হত্যা মামলার আসামি হয়ে নিজের এবং মা-বাবার স্বপ্নকে জলাঞ্জলি দিতে না হয়।

মিজান শাজাহান: সাংবাদিক
mizanshajahan@gmail.com

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com