বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান উৎসব

উৎসবমুখর দিন

প্রকাশ: ১৭ মে ২২ । ০০:০০ | আপডেট: ১৭ মে ২২ । ১০:৩১ | প্রিন্ট সংস্করণ

কামাল উদ্দিন

বগুড়া আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ মিলনায়তনে উৎসব শেষে অতিথিদের সঙ্গে অঞ্চল বিজয়ীরা

কুমিল্লা
কামাল উদ্দিন

ভোরের আকাশ ছিল মেঘলা। চারদিকে গুমোট আবহাওয়ার মধ্যেও বৃহত্তর কুমিল্লার তিন শতাধিক শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও শিক্ষকের পদচারণায় মুখর হয়ে ওঠে কুমিল্লা জিলা স্কুল প্রাঙ্গণ। কয়েক দফায় কুমিল্লা অঞ্চলের উৎসবের সময়সূচি পরিবর্তনের হলেও শুক্রবারের অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে উচ্ছ্বাস ছিল লক্ষণীয়। ডিম ভাজি পুড়ে যে রাসায়নিক বিক্রিয়া তৈরি হয়, এর নাম কী? হাঁচি দিলে আমাদের অনিচ্ছাসত্ত্বেও চোখ বন্ধ হয়ে যায় কেন? পাখির বায়ুথলি আছে বলে পাখি উড়তে পারে; কিন্তু ঘাসফড়িং ও প্রজাপতি কীভাবে উড়ে, এদের তো বায়ুথলি নেই। এমন মজার ও বুদ্ধিদীপ্ত প্রশ্ন ছিল শিক্ষার্থীদের।

অতিথিদের জবাবও ছিল তেমনি রসময় ও জ্ঞানগর্ভের। সব মিলিয়ে ১৩ মে বিজ্ঞানে তারুণ্যের স্পন্দন ও জয়ধ্বনি শোনা গেল বিডিবিও-সমকাল বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান উৎসবে কুমিল্লা অঞ্চলের আয়োজনে। এবার এ অঞ্চল থেকে জাতীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য টিকিট পেয়েছে ৯৬ জন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান। তিনি বলেন, জীববিজ্ঞান ছাড়া বিজ্ঞান শিক্ষাই যেন অসম্পূর্ণ। এখন সর্বত্রই বিজ্ঞানের জয়গান। প্রধানমন্ত্রী যে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখিয়ে ছিলেন, আজ আমরা মাথা উঁচু করতে বলতে পারি- সত্যিই আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশের গর্বিত নাগরিক। তিনি শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান শিক্ষায় এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

উৎসবের আহ্বায়ক ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মেহেরুন্নেছার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ পরমাণু কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট কুমিল্লার সিনিয়র বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. ফাহমিনা ইয়াসমিন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. শাহাদৎ হোসেন, জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষিকা রাশেদা আক্তার, বিডিবিওর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অনিরুদ্ধ প্রামাণিক, সাবেক সমন্বয়কারী প্রভাষক মো. মোরশেদুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. মাঈনুল ইসলাম খান মিথুন।

সভাপতির বক্তব্যে মেহেরুন্নেছা বলেন, তরুণ প্রজন্ম এগিয়ে এলেই দেশ আরও উন্নত, জ্ঞানময়, বিজ্ঞাননির্ভর জাতি হিসেবে পূর্ণতা পাবে। জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াডের প্রশ্ন ধারা ব্যতিক্রম, তাই এতে অংশ নিয়ে প্রতিযোগীরা নিজেদের মেধা যাচাই করে আরও সমৃদ্ধ করার সুযোগ পাচ্ছে।

সুহৃদ সমাবেশের সদস্য ও বিডিবিওর এনজাইমদের সার্বিক সহযোগিতায় উৎসবে কুমিল্লা ক্যাডেট কলেজ, ফেনী ক্যাডেট কলেজ, ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজ, শিক্ষা বোর্ড মডেল সরকারি স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ইবনে তাইমিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজ, সোনার বাংলা কলেজ, আবদুল মজিদ কলেজ, জিলা স্কুল, নবাব ফয়জুন্নেছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পুলিশ লাইন উচ্চ বিদ্যালয়, কালেক্টরেট অ্যান্ড কলেজসহ কুমিল্লা ২০ প্রতিষ্ঠান অংশ নেন।

পুরস্কার বিতরণ শেষে বিজয়ীরা ফটোসেশনে মিলিত হয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে।

কুমিল্লা প্রতিনিধি


বগুড়া
অসীম কুমার কৌশিক

সকাল থেকেই মেঘের গুড়গুড় আওয়াজ, নেই ঝলমলে রোদ। এমন প্রতিকূল পরিবেশ উপেক্ষা করেই বগুড়া আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) পাবলিক স্কুল ও কলেজে অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ জীববিজ্ঞান উৎসবের কুমিল্লা আঞ্চলিক উৎসব।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টায় জাতীয় সংগীতের তালে পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে বগুড়া অঞ্চলের জীববিজ্ঞান উৎসবের উদ্বোধন হয়। এরপর সুহৃদ ও এনজাইমদের দেখানো পথে শিক্ষার্থীরা নির্ধারিত কক্ষে প্রবেশ করে। শুরু হয় এক ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষা।

পরীক্ষা শেষে মিলনায়তনে প্রশ্নোত্তর পর্বের ঘোষণায় শিক্ষার্থীরা আরও বেশি উৎসাহী ও জ্ঞানপিপাসু হয়ে ওঠে। জীবন ও বিজ্ঞান সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের মনে এত দিন যে প্রশ্নগুলো ঘুরপাক খাচ্ছিল, এখনই তা জেনে নেওয়ার উত্তম সময়।

মাংসের চাহিদা পূরণের জন্য কি কৃত্রিম মাংস উৎপাদন সম্ভব? আমাদের শরীরে কোন রোগ বাসা বেঁধেছে, তা কি কোনো সফটওয়্যারের মাধ্যমে নিজেরাই জানতে পারব? অণু ও পরমাণুর সঙ্গে আমাদের কোষের সম্পর্ক কী- এ রকম অনেক প্রশ্ন করে শিক্ষার্থীরা।

খুদে শিক্ষার্থীদের প্রশ্নের উত্তর দিতে প্যানেলে ছিলেন সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী তাইফুল ইসলামসহ অন্য শিক্ষকরা।

প্রশ্নোত্তর পর্ব শেষে সমাপনী অনুষ্ঠানে পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের মেডেল ও ক্রেস্ট দেওয়া হয়। এ সময় বগুড়া এপিবিএন পাবলিক স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ এ টি এম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে জীববিজ্ঞান আঞ্চলিক উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন বগুড়া চতুর্থ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক মো. জয়নুল আবেদীন। বিশেষ অতিথি ছিলেন বগুড়া বিয়াম মডেল স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তাফিজুর রহমান, বগুড়া পুলিশ লাইন্স স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষ শাহাদৎ আলম ঝুনু এবং বগুড়া চতুর্থ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার নাহিদ হোসেন। প্রধান অতিথি বগুড়া ৪ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক মো. জয়নুল আবেদীন বিজয়ীদের হাতে ক্রেস্ট ও মেডেল তুলে দিতে গিয়ে সভ্যতার বিকাশে জীববিজ্ঞানের অবদান তুলে ধরে বলেন, সভ্যতা এবং তার ক্রমবিকাশ সম্পর্কে জানতে হলে অবশ্যই জীববিজ্ঞান জানতে হবে। সুহৃদ সাধারণ সম্পাদক অরূপ রতনের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন জীববিজ্ঞান অলিম্পিয়াড বগুড়া অঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিত কুমার দাস, সুহৃদ সহসভাপতি সাজিয়া আফরিন সোমা, সমকাল বগুড়ার ব্যুরোপ্রধান মোহন আখন্দ প্রমুখ।

উৎসবে তিন ক্যাটাগরিতে উত্তীর্ণ ৫৬ জনের মধ্যে হায়ার সেকেন্ডারি রাফিউল ইসলাম, সেকেন্ডারি শফিকুল ইসলাম এবং জুনিয়র ক্যাটাগরিতে আমির আবরার মো. ফারদিন সেতানকে 'ক্যাটাগরি চ্যাম্পিয়ন' ক্রেস্ট দেওয়া হয়। এ ছাড়া ৯ জন চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে। উৎসবের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সমাবেশের সদস্য ও বিডিবিওর এনজাইমরা।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুহৃদ সমাবেশ, বগুড়া

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com