ভারতে নির্যাতনের শিকার সেই তরুণীসহ ৪ জনকে বাংলাদেশে হস্তান্তর

প্রকাশ: ২১ মে ২২ । ২২:৩০ | আপডেট: ২১ মে ২২ । ২৩:০৮

সাহাদাত হোসেন পরশ

হৃদয় বাবুসহ তার বন্ধুরা, ডানপাশে নিচে ওই তরুণী, ছবি: আসাম পুলিশের ফেসবুক থেকে নেওয়া

ভারতে নির্যাতনের শিকার সেই তরুণীসহ চারজনকে বাংলাদেশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার বিকেলে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে তাদের বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে দেওয়া হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম সমকালকে বলেন, পুলিশের একটি টিম বেনাপোলে গেছে। ওই তরুণীকে আমাদের কাছে দিয়েছে।

পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের ডিসি বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, তাদের বুঝে পাওয়ার পর ঢাকায় আনা হচ্ছে। আদালতে তোলা হবে কি-না এ ব্যাপারে পরে সিদ্ধান্ত নেব।

পুলিশের আরেক কর্মকর্তা জানান, ঢাকায় এনে ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্নের পর নির্যাতনের শিকার তরুণীর সঙ্গে কথা বলবে পুলিশ। পাচারের সঙ্গে কারা কীভাবে জড়িত, তা বিস্তারিত জানার চেষ্টা করা হবে।

২০২১ সালের মে মাসে ওই তরুণীর ওপর চালানো যৌন নির্যাতনের ভিডিও বাংলাদেশ ও ভারতের আসামে ভাইরাল হয়। সেই ভিডিওর সূত্র ধরেই তদন্ত শুরু করে পুলিশ।

ভারতে ওই বাংলাদেশি তরুণীকে পাচার ও সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে ৭ বাংলাদেশিসহ মোট ১০ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড দেওয়া হয়েছে। ভারতের কর্ণাটক রাজ্যের রাজধানী বেঙ্গালুরুর একটি বিশেষ আদালত এ দণ্ডাদেশ দেন। এরমধ্যে সাতজনকে যাবজ্জীবন, একজনকে ২০ বছর ও একজনকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

শনিবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন, সবুজ, হৃদয় বাবু, রাফসান মণ্ডল, রকিবুল ইসলাম সাগর, মোহাম্মদ বাবু, ডালিম ও আজিম। তাদের প্রত্যেককেই যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

>> ভিডিও ভাইরাল: নির্যাতনের শিকার সেই তরুণীকে দেশে আনার উদ্যোগ
>> তরুণীকে ডেকে আনা হয় কৌশলে, ঘরে ঢুকতেই শুরু নির্যাতন
>> নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল: মেয়ে কীভাবে ভারতে জানেন না বাবা

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com