‘পাগলা ঘোড়া’ ছাত্রলীগ-যুবলীগ ভিন্নমতের নাগরিকদের হামলা করেছে: নুরুল হক

প্রকাশ: ২৮ মে ২২ । ১৫:৩৫ | আপডেট: ২৮ মে ২২ । ১৫:৩৫

সমকাল প্রতিবেদক

নুরুল হক নুর/ সংগৃহীত পুরোনো ছবি

ছাত্রলীগ ও যুবলীগকে পাগলা ঘোড়ার সঙ্গে তুলনা করে গণ অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর বলেছেন, ‘তাদের বেপরোয়া ছেড়ে দিয়েছে। তারা অন্য দল ও ভিন্নমতের নাগরিকদের ওপর হামলা করেছে। শুধু হামলাই করছে না, দেশের আদালত চত্বরকেও রক্তাক্ত করেছে। বর্তমান বিনা ভোটের সরকার ১৩ বছর ধরে স্বৈরতন্ত্র কায়েম করে আছে, ভবিষ্যতেও স্বৈরতন্ত্র কায়েম করতে চায়।’

রাজধানীর পল্টনে আজ শনিবার দুপুরে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। গণ অধিকার পরিষদের উদ্যোগে ‘বিরোধী দলের রাজনৈতিক নেতা-কর্মী ও ভিন্নমতের নাগরিকদের ওপর হামলা-মামলা, হুমকি-হয়রানি ও গুমের শিকার নাগরিকদের সন্ধান’–এর দাবিতে এই বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করা হয়।

বেলা ১১টার দিকে বিক্ষোভ মিছিলটি পল্টনের জামান টাওয়ারের নিচ থেকে শুরু হয়। গণ অধিকার পরিষদের নেতা–কর্মীরা মিছিলটি নিয়ে জিরো পয়েন্ট হয়ে প্রেসক্লাবের দিকে এগিয়ে গেলে সেখানে যুবদলের একটি কর্মসূচি চলায় মিছিলটি আবার ফিরে এসে পল্টন জিরো পয়েন্টে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করে। কর্মসূচি চলাকালে অন্তত আধা ঘণ্টা পল্টন মোড় দিয়ে বাস চলাচল বন্ধ ছিল।

ছাত্রলীগ ও যুবলীগ যেখানে–সেখানে অন্য দলের মানুষকে আক্রমণ করছে বলে অভিযোগ করেছেন গণ অধিকার পরিষদের নেতারা। তাঁরা বলেছেন, এসব হামলা-নির্যাতনে বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতা–কর্মী ও ভিন্নমতের নাগরিকেরা ছাড়াও সাধারণ মানুষও শিকার হচ্ছেন।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আগেই থেকেই অবস্থান নিয়ে সমাবেশ করছিল জাতীয়তাবাদী যুবদল। গণ অধিকার পরিষদের সদস্যসচিব নুরুল হকের নেতৃত্বে বেলা ১১টার দিকে মিছিলটি সেখানে গিয়ে আটকা পড়ে। পরে সেখানে কিছুক্ষণ অপেক্ষা করে গণ অধিকার পরিষদের মিছিলটি আবার পল্টন জিরো পয়েন্টে ফেরে।

বিএনপিকে ইঙ্গিত করে নুরুল হক বক্তব্যে বলেন, ‘আপনারা অতীতে ক্ষমতায় ছিলেন; ভবিষ্যতে শেখ হাসিনার পতন হলে একটি সম্মিলিত সরকার গঠিত হবে। বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সেখানে থাকবে। কিন্তু আপনাদের আচরণ যদি এখনো অসহিষ্ণু হয়, আপনাদের দ্বারা মানুষ কীভাবে সহনশীল রাষ্ট্র আশা করবে? আমরা প্রেসক্লাবের এখান থেকে শান্তিপূর্ণ একটি মিছিল নিয়ে যেতে চেয়েছিলাম। কিন্তু আমরা দেখেছি, একটি রাজনৈতিক দলের কর্মসূচি চলছে। তাদের সর্বোচ্চ নেতৃবৃন্দ আমাদের জায়গা করে দেওয়ার কথা বললেও নেতা–কর্মীরা আমাদের জায়গা দেয়নি। আপনাদের এই অসহিষ্ণু আচরণ প্রমাণ করে, আপনাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সহনশীলতা তৈরি হয়নি।’

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com