চলন্ত ট্রেনে ছেলে সন্তান প্রসব করলেন জেসমিন

প্রকাশ: ১৯ জুন ২২ । ১১:৪৯ | আপডেট: ১৯ জুন ২২ । ১৩:৫৪

জয়পুরহাট প্রতিনিধি

ট্রেনে জন্ম নেওয়া নবজাতক

ঢাকা থেকে পঞ্চগড়গামী আন্তঃনগর একতা এক্সপ্রেস ট্রেনে করে বাড়িতে আসার পথে চলন্ত ট্রেনের মধ্যেই ছেলে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এক প্রসূতি। একতা এক্সপ্রেস নামক ট্রেনটি ঢাকা থেকে পঞ্চগড়ে আসার পথে জয়পুরহাট জেলার আক্কেলপুর স্টেশন অতিক্রম করার সময় শনিবার রাতে এই ঘটনা ঘটে। পরে জয়পুরহাট রেলওয়ে স্টেশনে ওই প্রসূতি ও নবজাতককে নামিয়ে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চলন্ত ট্রেনে নবজাতক জন্ম দেওয়া প্রসূতির নাম জেসমিন আক্তার (২৬)। তিনি জয়পুরহাট জেলার কালাই উপজেলার জিন্দারপুর ইউনিয়নের নানাহার গ্রামের বাসিন্দা তহিদুল ইসলামের স্ত্রী। আর তহিদুল ইসলাম আনসার সদস্য।জেসমিন ও তহিদুল দম্পতি আন্তঃনগর একতা এক্সপ্রেসের ‘ছ’ বগির ৭২ ও ৭৩ নম্বর সিটে বসে ঢাকা থেকে আসছিলেন। সন্তান প্রসবের উদ্দেশেই তারা নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন।

দিনাজপুর রেলওয়ে জিআরপি থানার ওসি এরশাদুল হক ভূঁইয়া রোববার সকালে সমকালকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

দিনাজপুর রেলওয়ে জিআরপি স্টেশনের এটিএসআই মিজানুর রহমান বলেন, আমি ওই ট্রেনে ঢাকা থেকে ডিউটিতে ছিলাম। ট্রেনটি আক্কেলপুর ষ্টেশন পার হলেই ‘ছ’ বগির ৭২ ও ৭৩ নম্বর সিটে বসা গৃহবধূর প্রসব বেদনা ওঠে। এ সময় আশপাশের অন্যান্য নারীরা কাপড় দিয়ে ওই জায়গাটি ঘিরে দেন। ট্রেনটিতে করে আসছিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের রেজিস্ট্রার ডা. রাফসান জানি। বিষয়টি তিনি জেনে তাৎক্ষণিক ওই বগিতে গিয়ে গৃহবধূর প্রসবের ব্যবস্থা করেন। পরে ছেলে নবজাতক জন্ম দেন ওই প্রসূতি। ট্রেনটি আধাঘণ্টা পর জয়পুরহাট স্টেশনে আসলে প্রসূতির স্বামী ও আত্মীয়রা ট্রেন থেকে তাদের নামিয়ে নেন এবং জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করান। 

জয়পুরহাট সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. সরদার রাশেদ মোবারক জানান, ট্রেনে জন্ম নেওয়া নবজাতক ও প্রসূতিকে হাসপাতালের গাইনী ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। গাইনী চিকিৎসক ডা. শাপলা তার চিকিৎসা দিচ্ছেন। ওই শিশু ও তার মা বর্তমানে সুস্থ আছেন।

© সমকাল ২০০৫ - ২০২২

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : মোজাম্মেল হোসেন । প্রকাশক : আবুল কালাম আজাদ

টাইমস মিডিয়া ভবন (৫ম তলা) | ৩৮৭ তেজগাঁও শিল্প এলাকা, ঢাকা - ১২০৮ । ফোন : ৫৫০২৯৮৩২-৩৮ | বিজ্ঞাপন : +৮৮০১৭১৪০৮০৩৭৮ | ই-মেইল: samakalad@gmail.com