কানাডায় বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা হু হু করে বেড়েই চলছে। করোনায় কানাডায় প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে গত ৮ মার্চ। সে থেকে এই পর্যন্ত মৃত্যুর হিসাব করে দেখা গেছে – করোনাভাইরাসে গড়ে প্রতিদিন সেখানে ৪০ জনের মৃত্যু হচ্ছে। আর বর্তমানে করোনায় হচ্ছে কানাডার তৃতীয় শীর্ষ ঘাতকব্যাধি।

কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হছে এখন পর্যন্ত ২ হাজার ৪৬৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ৪৫ হাজার ৩৫৪ জন। এখন পর্যন্ত সেরে উঠেছেন ১৬ হাজার ৪২৫ জন।

কানাডায় এক নম্বর ঘাতকব্যাধি হচ্ছে ক্যান্সার, গড়ে প্রতিদিন ২১৫ জন নাগরিকের মৃত্যু হয় ক্যান্সারে। দ্বিতয়ি স্থানে রয়েছে বক্ষব্যাধি, এতে মারা যায় ১৪২ জন করে।

গত ৪০-৫০ বছর ধরে কানাডায় ঘাতকব্যাধি হিসেবে ক্যান্সার, হার্ট ডিজিস, ডায়বেটিকস শীর্ষে থেকেছে। কানাডার পত্রিকা টরন্টো স্টার তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করে ঘাতকব্যাধির এই ক্রম দাঁড় করিয়েছে।

এদিকে শুক্রবার কানাডার রাজধানী অটোয়া থেকে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এক বিবৃতিতে কানাডাসহ বিশ্বের সকল মুসলমান সম্প্রদায়ের জন্য তিনি, তার স্ত্রী সোফী এবং তার পরিবারের পক্ষ থেকে ‘রমজান মুবারক’ বলে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ঐতিহ্যগতভাবে রমজানে সম্মিলিত সমাবেশ হয় ইফতারি এবং তারাবিতে। কিন্তু এই বছর রমজানের সময় আমরা কোভিড-১৯ মহামারির বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছি। তাই ঘরে বসেই জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুসরণ করে মসজিদ থেকে অনলাইনে নামাজের হোস্টিং করা নামাজ ও ইফতারে অংশ নেওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, এই সংকট চলাকালীন সময়ে ইসলামের মূল্যবোধ, সহানুভূতি, কৃতজ্ঞতা এবং উদারতা আগের তুলনায় আরও বেশি অনুস্মরণীয় এবং অনুকরণীয়। কানাডিয়ান মুসলিমরা আমাদের দেশে প্রতিদিন যে মূল্যবান অবদান রাখেন, সেজন্য আমি কৃতজ্ঞতা জানাই।