বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উৎকর্ষতার সঙ্গে অনেক কিছুর পরিবর্তন হলেও ১০০ বছর আগের সেই পুরোনো রূপেই রয়ে গেছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় পালতোলা জাহাজ সিদভ। এখনও সেই পুরোনো প্রযুক্তিতেই চলছে জাহাজটি।

বিশ্বের সবচেয়ে বড় পালতোলা জাহাজ এবং একইসঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে রাশিয়ার নৌবাহিনীতে প্রশিক্ষণ কাজে ব্যবহৃত হওয়ার কারণে ইতোমধ্যে এটি গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নিয়েছে।

১৯২০ সালে জার্মানভিত্তিক জাহাজনির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান ফ্রেডরিখ ক্রুপ জার্মানিওয়ার্ফট এ জাহাজটি নির্মাণ করে। তখন এর নাম রাখা হয় দ্বিতীয় মাগডালিনে ফিনেন। পরের বছরের সেপ্টেম্বরে জাহাজটি জার্মানির ব্রেমেন থেকে ইংল্যান্ডের কার্ডিফ হয়ে আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনস আয়ার্সে কয়লা পরিবহনের কাজ শুরু করে। পরবর্তীকালে কার্গো হিসেবে অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, চিলি, শেচেলসসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কাঠ, বিভিন্ন ধরনের খাদ্যদ্রব্য এমনকি অনেক মূল্যবান আকরিক পরিবহনের কাজে সিদভকে ব্যবহার করা হয়েছে।

১৯৩৬ সালে নর্ডডয়েচার লিয়ড নামক জার্মানভিত্তিক অন্য একটি জাহাজ নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান এ জাহাজটি কিনে নেয়। তারা জাহাজটিকে নতুনভাবে সংস্কার করে। সে সময় জাহাজটিকে কার্গো পরিবহনের পাশাপাশি প্রশিক্ষণ কাজেও ব্যবহার করা হতো। দ্বিতীয় মাগডালিনে ফিনেন থেকে জাহাজটির নাম রাখা হয় কমোডোর জনসেন।

১৯৪৫ সালে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জার্মানির নেতৃত্বাধীন অক্ষশক্তির পরাজয় ঘটে। ফলে ক্ষতিপূরণ হিসেবে জাহাজটির মালিকানা জার্মানদের থেকে রাশিয়ানদের হাতে চলে আসে। বিখ্যাত রুশ আর্কটিক পরিব্রাজক জিওর্জি সিদভের নাম অনুসারে রাশিয়ানরা জাহাজটির নাম রাখে সিদভ। ১৯৫২ সাল থেকে শুরু করে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত সোভিয়েত ইউনিয়নের নৌবাহিনীর প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন ধরনের ওশানোগ্রাফিক রিসার্চের কাজে এ জাহাজটি ব্যবহার করা হয়।

শতাব্দী পেরিয়ে ২০২০ সালে এসে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করল সামুদ্রিক জাহাজ সিদভ। এখন পর্যন্ত জাহাজটি পাড়ি দিয়েছে একশ হাজার নটিক্যাল মাইলের বেশি পথ। এ সময়ে জাহাজটি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের প্রায় ৪০টি আন্তর্জাতিক সমুদ্রবন্দর ভ্ৰমণের অভিজ্ঞতা অর্জন করেছে। এক সময় নৌবাহিনীর প্রশিক্ষণ কাজে ব্যবহৃত হওয়া এ জাহাজটি গত ফেব্রুয়ারিতে সাতটি মহাদেশ আবিষ্কারের দুইশ বছর পূর্তিতে অংশ নেয়। ২০১২ সালে সিদভ বিশ্বভ্রমণে বের হয়। প্রায় ১৩ মাস পৃথিবী পরিভ্রমণ শেষে ২০১৩ সালের ২০ জুলাই রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবার্গে জাহাজটি নোঙর করে।

বর্তমানে সামুদ্রিক জাহাজ সিদভ বাল্টিক সাগরের তীরে অবস্থিত রাশিয়ার বিশেষ অঞ্চল কালিনিনগ্রাডকে প্রধান বন্দর হিসেবে ব্যবহার করে আসছে এবং জাহাজটির তত্ত্বাবধায়নে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কালিনিনগ্রাড স্টেট টেকনিক্যাল ইউনিভার্সিটিকে।