দেশে মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে প্রতিদিনের খরচ মেটানোর আয় নেই ৮৬ শতাংশ শ্রমিকের। এছাড়া কর্মজীবীদের মধ্যে ৪০ শতাংশ কভিডের আগের চেয়ে কষ্টকর অবস্থায় আছে। আয় কমে যাওয়ার কারণে ব্যয়ের সঙ্গে আপস করে চলছে ৭৮ শতাংশ পরিবার। এসব পরিবারকে বেঁচে থাকার মতো খাদ্য এবং জরুরি শিশু খাদ্যের সঙ্গেও আপস করতে হচ্ছে।

বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) এক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। বুধবার এক সংলাপে এ জরিপ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। ‘কভিডকালে আয় ও কর্মসংস্থান পরিস্থিতি: কীভাবে মানুষ টিকে আছে?’ শীর্ষক এ খানা জরিপ পরিচালনায় সহযোগিতা করেছে অক্সফাম ইন বাংলাদেশ ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)।

এসব সংস্থার সঙ্গে সংলাপ আয়োজনে সহযোগিতা করেছে এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্ল্যাটফর্ম। সারাদেশের দুই হাজার ৬০০ পরিবারের সঙ্গে সরাসরি সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে এ জরিপ পরিচালনা করা হয়।

সংলাপে অংশ নেন সিপিডির চেয়ারম্যান অধ্যাপক রেহমান সোবহান, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা এবং বিশিষ্ট উদ্যোক্তা তপন চৌধুরী, সিপিডির সম্মানীয় ফেলো এবং এসডিজি বাস্তবায়নে নাগরিক প্ল্যাটফর্মের আহবায়ক ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য, অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান, নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন, বিজিএমই-এর সহ-সভাপতি শহীদুল্লাহ আজিম,এমপ্লয়ার্স ফেডারেশনের সভাপতি কামরান টি রহমান, ঢাকা চেম্বারের সভাপতি রিজওয়ান রহমান প্রমুখ।

বিষয় : করোনাভাইরাস খরচ আয়

মন্তব্য করুন