যুক্তরাষ্ট্রের কোস্টগার্ডের একটি জাহাজ থেকে ইরানের কয়েকটি নৌযান লক্ষ্য করে সতর্কতামূলক গুলি ছোঁড়া হয়েছে। সোমবার হরমুজ প্রণালিতে এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগন এ তথ্য জানায়। খবর বিবিসির।

পেন্টাগন জানায়, ইরানের নৌযানগুলোকে লক্ষ্য করে অন্তত ৩০টি সতর্কতামূলক গুলি ছোঁড়া হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেপণাস্ত্রবাহী সাবমেরিন ইউএসএস জর্জিয়া ওই পথ দিয়ে যাচ্ছিল। সাবমেরিনটির পাহারায় ছিল যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনীর ছয়টি জাহাজ। এদিন নৌবাহিনীর জাহাজগুলোর ১৪০ মিটারের মধ্যে চলে এসেছিল ইরানের দ্রুতগতির ১৩টি নৌযান।

পেন্টাগনের ভাষ্য, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রের কোস্টগার্ডের একটি জাহাজ থেকে ইরানের দ্রুতগতির নৌযানগুলোকে লক্ষ্য করে অন্তত ৩০টি সতর্কতামূলক গুলি ছোঁড়া হয়। পরে ইরানের নৌযানগুলো সরে যায়। এ নিয়ে অঞ্চলটিতে গত দুই সপ্তাহের মধ্যে এ ধরনের দ্বিতীয় ঘটনা ঘটল।

উপসাগরীয় অঞ্চলের এক সরু জলপথ হরমুজ প্রণালি। এ প্রণালি বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নৌ চলাচলের পথ। সাম্প্রতিক বছরগুলোয় ইরান ও পশ্চিমা দেশগুলোর মধ্যে উত্তেজনার কেন্দ্রে রয়েছে এ নৌপথ।

ইরানের যে নৌযানগুলো লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয়েছে, সেগুলো দেশটির ইসলামিক রেভল্যুশনারি গার্ডের নৌবাহিনীর। পেন্টাগনের মুখপাত্র জন কারবি অভিযোগ করেন, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর নৌযানের কাছে অত্যন্ত আগ্রাসীভাবে তৎপরতা চালাচ্ছিল ইরানের নৌযানগুলো। এমন তৎপরতা অনিরাপদ ও অপেশাদার। এ ধরনের কর্মকাণ্ড থেকে হতাহত হওয়ার ঘটনা ঘটতে পারে। তবে এ বিষয়ে ইরানের কাছ থেকে তাৎক্ষণিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য করুন