বহির্বিশ্বে প্রতিনিয়ত গুরুত্ব বাড়ছে কভিড-১৯ টিকার। সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের মতো দেশগুলোতে স্থানীয় নাগরিকদের পাশাপাশি অভিবাসী কর্মীদের টিকা নেওয়ার ওপর বেশ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এরমধ্যে মধ্যপ্রাচ্যের সঙ্গে ফ্লাইট বন্ধ থাকা দেশগুলোর প্রবাসীরা রয়েছেন বিশেষ আলোচনায়।

আকাশপথে যোগাযোগ বন্ধ থাকায় মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমানসহ বেশকিছু দেশের হাজার হাজার প্রবাসী দেশে আটকা পড়েছেন। আটকেপড়া প্রবাসীদের দ্রুত টিকা গ্রহণের জন্য তাগাদা দেওয়া হচ্ছে। নিকট ভবিষ্যতে মধ্যপ্রাচ্যে প্রবেশের ক্ষেত্রে টিকা সনদ রাখার ব্যাপারেও বাধ্যবাধকতা আসতে পারে বলে মনে করছেন প্রবাসীরা। কারণ সীমিত পরিসরে ফ্লাইট চালু রাখা দেশগুলো ইতোমধ্যে টিকা গ্রহণকারীদের প্রবেশে প্রাধান্য দিচ্ছে।

এদিকে সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রতিদিন গড়ে এক লাখ ২০ হাজার ডোজ টিকা দিচ্ছে। দেশটিতে গত শুক্রবার পর্যন্ত এক কোটি ১৯ লাখ ৪৪ হাজার ডোজ টিকা প্রয়োগ করা হয়েছে। রাশিয়ার স্পুতনিক ভি, চীনের সিনোফার্ম ও আমেরিকার অনুমোদিত ফাইজার টিকা দেওয়া অব্যাহত রেখেছে আরব আমিরাত।

এরমধ্যে চীনের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়ে হায়াত-ভ্যাক্স নামে নিজস্ব করোনা উৎপাদনও শুরু করেছে দেশটি। প্রাথমিকভাবে মাসে ২ মিলিয়ন ডোজ উৎপাদনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। অন্যদিকে, চীনের সিনোফার্ম টিকা গ্রহণকারীদের সর্বোচ্চ সুরক্ষার সহায়ক হিসেবে ছয়মাস পর তৃতীয় ডোজ গ্রহণের জন্যও উৎসাহিত করছে সংযুক্ত আরব আমিরাত।

প্রবাসীরা বলছেন, দেশে আটকেপড়া অভিবাসীরা ফিরে যেতে করোনা টিকা গ্রহণ না করার বিকল্প নেই। শ্রমিক ভিসায় বিদেশ গমনেচ্ছুকদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সরকারের উচিত টিকা নিশ্চিত করা। কেননা টিকা না দেওয়ার কারণে সৌদি প্রবাসীদের কোয়ারেন্টাইনের জন্য অতিরিক্ত টাকা খরচ করতে হচ্ছে। টিকা গ্রহণ না করলে আগামীতে অন্যান্য দেশে প্রবেশের ক্ষেত্রেও জটিলতা দেখা দিতে পারে।

দুবাই প্রবাসী জুলফিকার হায়দার খান সমকালকে বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের সব দেশ এখন টিকার ওপর গুরুত্ব দিচ্ছে। যদিও বর্তমানে সংযুক্ত আরব আমিরাতের ফ্লাইট চলাচল বন্ধ আছে। সৌদি আরবে শর্তসাপেক্ষে যাতায়াত চলছে। তবে সৌদিতে ৭ দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করেছে কর্তৃপক্ষ। যে কারণে প্রবাসীদের গুনতে হবে অতিরিক্ত ৪০ থেকে ৫০ হাজার টাকা। দেশে আটকেপড়া প্রবাসী যারা এখনও টিকা গ্রহণ করেননি তাদের মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে প্রবেশের অনুমতি পেতেও জটিলতা দেখা দিতে পারে। তাই দ্রুত সময়ের মধ্যে আটকেপড়া প্রবাসীদের টিকা নেওয়া উচিত।

মন্তব্য করুন