করোনা মহামারিতে সরকারি বিধিনিষেধে উৎসবমুখর পরিবেশে ঈদ উদযাপন করতে পারেননি কুয়েত প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

বাংলাদেশের সঙ্গে কুয়েতের ফ্লাইট বন্ধ থাকায় দেশে ফিরে পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে না পারায় এবারের ঈদুল আযহা তাদের কাছে নিরানন্দের ঈদ। এবার তাই সাদামাটাভাবেই ঈদ উদযাপন করেছেন তারা।

মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৫টা ১৬ মিনিটে সমগ্র কুয়েতে একযোগে ঈদের নামাজ আদায় করেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। এবার কুয়েতের ধর্ম মন্ত্রণালয় শুধু আরবিতেই খুৎবা পাঠের অনুমতি দিয়েছিল। তবে প্রবাসী বাংলাদেশিরা কয়েকটি মসজিদে বাংলা খুৎবার ব্যবস্থা করে ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেন।

করোনা মহামারির মধ্যে মসজিদে নারীদের নামাজ আদায় বন্ধ থাকলেও ঈদুল আযহার দিনে বেশ কয়েকটি মসজিদে নারীদের যেতে দেখা গেছে।

নামাজ আদায়ের পর সরকার নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি দিতে চলে যান প্রবাসীরা। কেউ একা, কেউ আবার অন্যান্য প্রবাসীদের সঙ্গে মিলে এ বছর পশু কোরবানি দিয়েছেন।

ঈদুল আযহা উপলক্ষে কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের  রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মো. আশিকুজ্জামান এক ভিডিও বার্তায় কুয়েত প্রবাসীদের ঈদের শুভেচ্ছা জানান।