কুড়িগ্রামের চিলমারীতে বিয়ের কথা বলে তরুণীকে (২৪) নৌকায় তুলে নিয়ে ধর্ষণের অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। রোববার ভোর রাতে উপজেলার দ্বীপচরের ইউনিয়ন অষ্টমীচরের পশ্চিম ডাটিয়ারচর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার ওই যুবকের নাম সফিকুল ইসলাম (৩৫)। তিনি উপজেলার পশ্চিম ডাটিয়ারচর গ্রামের জমের আলী আকন্দের ছেলে।

মামলার এজাহার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার ওই তরুণীর সাথে অভিযুক্ত সফিকুল ইসলামের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ছয়টার দিকে সফিকুল বিয়ের কথা বলে ওই তরুণীকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে নৌকায় তোলেন। এক পর্যায়ে সেখানেই তরুণীকে ধর্ষণ করেন। পরে রাত ৯টার দিকে ভিকটিমকে কৌশলে তার বাড়ির পাশে নামিয়ে দিয়ে পালিয়ে যান।

এ ঘটনায় শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ভিকটিম বাদী হয়ে সফিকুল ইসলাম এবং তার সহযোগীসহ পাঁচজনকে আসামি করে চিলমারী থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে রোববার ভোর রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে সফিকুলকে গ্রেপ্তার করে।

চিলমারী মডেল থানার ওসি মো. আনোয়ারুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ওই এলাকাটি ঢুষমারা থানাধীন। এজন্য অভিযুক্তকে গ্রেপ্তারে ঢুষমারা পুলিশের সহযোগিতা নেওয়া হয়েছে।

ওসি আরও জানান, গ্রেপ্তার সফিকুল ইসলামকে রোববার আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এছাড়া ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভিকটিমকে জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।