সম্প্রতি দেশে হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর ঘটে যাওয়া কয়েকটি নির্যাতন, ভয়তীতি প্রদর্শন, পূজামণ্ডপ ও প্রতিমা ভাঙচুর এবং লুটপাটের প্রতিবাদে মঙ্গলবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের মানববন্ধন করেছে প্রবাসী সনাতনী ঐক্য পরিষদ।

মানবন্ধনে সনাতনী নেতারা দেশের বিভিন্ন জায়গায় অবস্থিত তাদের পরিবারের নিরাপত্তা, ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও ধর্মীয় উপাসনালয় রক্ষার্থে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সরকারের কাছে অনুরোধ জানান।

এছাড়া চলমান সহিংসতায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিসহ সহিংসতায় আহত ও নিহত ব্যক্তিদের ক্ষতিপূরণ, ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও মন্দির পুনঃনির্মাণের জন্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন তারা।

স্থানীয় সময় দুপুরে পরিষদের সদস্যরা দুবাই বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল বিএম জামাল হোসেনের হাতে স্মারকলিপিও তুলে দেন। এসময় পরিষদের সদস্য অজিত কুমার রায়, প্রকৌশলী উত্তম হালদার, বলদেব নিতাই চন্দ্র দাস, সাংবাদিক সনজিত কুমার শীল, সুজন চক্রবর্তী, সুনীল কুমার শীল, সুজন দত্ত, সঞ্জিত দেবনাথ, সুজন শর্মা, পঙ্কজ ঘোষ, মিহির শর্মা, শিবুলু দাস, অলক কর্মকার, কাজল দেবনাথ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সনাতনী নেতারা বলেন, অসাম্প্রদায়িক সরকার ক্ষমতায় থাকা সত্ত্বেও হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর নির্যাতন, প্রতিমা ও পূজা মন্ডপে ধ্বংসাত্মক হামলা অপ্রত্যাশিত ও দুঃখজনক। সকল অপরাধীদের চিহ্নিত করে দ্রুত বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে সকলের বসবাসযোগ্য করে তুলতে হবে। আমরা সরকারের কাছে সুরক্ষা আইন দাবি জানাচ্ছি।