এবারের দুর্গাপূজায় বাংলাদেশে সহিংসতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদের শুরুটা হয়েছিল কানাডার ক্যালগেরির অনলাইন নিউজ পোর্টাল ’প্রবাস বাংলা ভয়েসে’। পোর্টালটির সম্পাদক আহসান রাজিব বুলবুলের সঞ্চালনায় ক্যালগেরির সূধীজনদের নিয়ে আয়োজিত হয়েছিল ভার্চ্যূয়াল প্রতিবাদ সমাবেশে। এরপরই ক্যালগেরিতে অনুষ্ঠিত হয় প্রতিবাদ মানববন্ধন। ক্যালগেরিতে প্রতিক্রিয়াটা শুরু হলেও সেটি এখন ছড়িয়ে পরছে কানাডার অন্যান্য শহরেও। 

টরন্টোয় প্রতিবাদ হবে টানা চারদিন ধরে। ২২ অক্টোবর সন্ধ্যা ৬টায় ডেনফোর্থের সুইস বেকারি- ঘরোয়া রেস্তোরার সামনে মানববন্ধনের ডাক দিয়েছে টরন্টোর সচেতন নাগরিবৃকন্দ। চাকসুর সাবেক জি এস আজিমউদ্দিন আহমেদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই মানববন্ধনে সবাইকে যোগ দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

টরন্টো ফিল্ম ফোরাম আগামী ২২শে অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় ৩০০০ ড্যানফোর্থ এ মানববন্ধন এর আয়োজন করেছে বলে ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মনিস রফিক জানিয়েছেন।

ডেনটনিয়া পার্কে শহীদ মিনারের পাদদেশে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন ডেকেছে অন্টারিও আওয়ামী লীগ। ২৩ অক্টোবর বিকেল ৫ টায় এই কর্মসূচিতে অংশ নিতে অন্টারিও আওয়ামী লীগের সভাপতি মোস্তফা কামাল এবং সাধারণ সম্পাদক লিটন মাসুদ আহ্বান জানিয়েছেন।

পরের দিন ২৪ অক্টোবর ডেনফোর্থে মানববন্ধনের ডাক দিয়েছে প্রগতিশীল গনতান্ত্রিক ঐক্য (পিডিআই)। বিকেল ৪টায় এই কর্মসূচিতে অংশ নিতে আহ্বান জানিয়েছেন পিডিআইর পক্ষে আজিজুল মালিক,বিদ্যুৎ রঞ্জন দে এবং মাহবুব আলম।

২৪ অক্টোবর মন্ট্রিয়লে অনুষ্ঠিত হবে গণমিছিল ও প্রতিবাদ সভা। দুপুর ১২টা থেকে ২টা পর্যন্ত এই কর্মসূচীতে অংশ নিতে আহ্বান জানিয়েছে ‘বাংলাদেশি হিন্দু কমিউনিটি অব মন্ট্রিয়ল’।

২৫ অক্টোবর সোমবার টরন্টোর কুইন্সপার্কে অন্টারিওর প্রভিন্সিয়াল পার্কের সামনে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশি কানাডীয়ান হিন্দুস। বুধবার টরন্টো সময় রাত ৯টা (বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৭টা) ) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত ‘শওগাত আলী সাগর লাইভে’ আলোচনা হবে বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির সংকট নিয়ে। কবি আসাদ চৌধুরী, ডেনফোর্থ ইসলামিক সেন্টার মসজিদের ইমাম হাফেজ মাওলানা ফারুক আহমদ এবং টরন্টো হিন্দু মন্দিরের সাবেক প্রেসিডেন্ট শিবু চৌধুরী আলোচনায় অংশ নেবেন।

টরন্টো, মন্ট্রিয়লে বাংলাদেশি কানাডীয়ানদের এই কর্মসূচিগুলোর প্রতি পূর্ণ সমর্থন কানাডার প্রবাসী বাঙ্গালিদের। টরন্টোর কর্মসূচিগুলোর প্রায় সবকটিতেই অংশ নেয়ার চেষ্টা করবে প্রবাসীরা। প্রভিন্সিয়াল পার্লামেন্টের সামনে সোমবারের কর্মসূচীতে অনেকেই অংশ গ্রহণ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

কানাডায় বসবাসরত বাংলাদেশি বন্ধুদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন। বাংলাদেশের সংঘটিত বর্বরোচিত অপকর্মের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের প্রতিবাদ অব্যাহত রয়েছে।