কানাডায় বসবাসরত চট্টগ্রামবাসীদের সংগঠন ‘চিটাগাং অ্যাসোসিয়েশন অব কানাডা ইনক’র মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি ব্যাঙ্কুয়েট হলে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের নির্বাচন এবং ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা সম্পর্কে সদস্যদের মতামত নিতে এ সভার আয়োজন করা হয় বলে সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

চিটাগং অ্যাসোসিয়েশন অব কানাডা ইনক প্রতিষ্ঠার পর ১৯ বছর ধরে কানাডায় চট্টগ্রামের সংস্কৃতি, ঐতিহ্য তথা বাংলাদেশের ঐতিহ্য কানাডার মূল সংস্কৃতিতে তুলে ধরতে কাজ করে যাচ্ছে।

অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শিবু চৌধুরীর সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় ‘কইলজার ভেতর চট্টগ্রাম’ শিরোনামে ডিজিটাল উপস্থাপনার মাধ্যমে সংগঠনের আয়-ব্যয়ের হিসাব বিবরণী, ওয়েবসাইট, ফেসবুক পেজ, নিজস্ব ফোন নম্বর ও কর্মকাণ্ড তুলে ধরা হয়। একই সঙ্গে গত ১৯ বছরের কর্মকাণ্ড ও চট্টগ্রামের ঐতিহ্য প্রদর্শন করা হয়। ৩০ মিনিটের উপস্থাপনায় চট্টগ্রামের সংস্কৃতি ও সংগীত সবার হৃদয় ছুঁয়ে যায়। সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাসোসিয়েশনের সদস্যদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। ডিজিাটাল উপস্থাপনা করেন কফিলউদ্দিন পারভেজ এবং বিশ্বজিত পাল। ধারা বর্ণনা করেন সব্যসাচী চক্রবর্তী।

সভাস্থলে মঞ্চ থাকলেও সভাপতি শিবু চৌধুরী সাধারণ সদস্যদের সঙ্গে বসেই সভার সভাপতিত্ব করেন। শুরুতে সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শওকত মাহমুদ সংগঠনের বিগত দিনের কার্যবিবরণী ও ভবিষ্যৎ কার্যক্রম তুলে ধরেন। তিনি বলেন, সবার মতামতকে গুরুত্ব দিতেই মতবিনিময় সভার আয়োজন। ডাকসুর সাবেক এজিএস নাসির উদ-দৌজা সভার আলোচ্যসূচি, উদ্ভূত পরিস্থিতির ব্যাখ্যা এবং সাবেক সভাপতি আলমগীর হাকিম সবার সঙ্গে যোগাযোগের মাধ্যমে যে উদ্যোগ নেয় তার বিবরণ সভায় তুলে ধরেন। বিপুল সংখ্যক চট্টলবাসী করতালির মাধ্যমে নেতৃবৃন্দের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানায়।

টরন্টোর জর্জ ব্রাউন কলেজের অধ্যাপক ড. সুজিত দত্ত, ওয়াটার লু কনেসটোগা কলেজের অধ্যাপক ড. কাঞ্চন পুরোহিত সবাইকে মিলেমিশে কাজ করার আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে সিনিয়র সাংবাদিক নিউজপোর্টাল দূরবীন২৪.কম সম্পাদক ও প্রকাশক মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার আশরাফুল করিম রনি, বিজিএমইএ সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট নাসির উদ্দিন চৌধুরী, সাংস্কৃতিক কর্মী নাসিমা খানম নীলু বক্তব্য রাখেন।

নতুন প্রজন্মের মেহের ও সামির চট্টগ্রামের প্রতি তাদের আবেগ-ভালোবাসা তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন। পরিচালকদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন সাবেক সভাপতি আলমগীর হাকিম, কফিল উদ্দিন পারভেজ, সরওয়ার জামান, বাহাউদ্দিন বাহার, হেলাল প্রমুখ।

সভাপতির বক্তব্যে শিবু চৌধুরী সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আগামীতে বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তীর উৎসব স্মরণে ১৬ ডিসেম্বর বিজয় উৎসব ও মহান একুশ পালন করবে চিটাগাং অ্যাসোসিয়েশন কানাডা ইনক। এছাড়া আরও অনেক অনুষ্ঠানের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সব্যসাচী চক্রবর্তী ও মুনিরা সুলতানা মিলির সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় ট্রাস্টিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন-কানন বড়ুয়া, সুধান রায়, পরিচালক সেলিনা হোসাইন, মোহাম্মদ আজম, সনৎ বড়ুয়া, সমর পাল, শ্যামল ভট্টাচার্য্য, চার্টার্ড অ্যাকাউটেন্ট কাজী সাজ্জাদ হোসাইন, নিশাদ হোসাইন, ডা. অসীম বড়ুয়া, ফরিদ সিদ্দিকীসহ বিপুল চট্টলবাসী।

অনুষ্ঠানে বক্তারা জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সবাইকে নিয়ে অসাম্প্রদায়িক ও সম্প্রীতির বীর প্রসবিনী চট্টগ্রামকে এগিয়ে নেওয়ার দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন এবং কানাডায় বহুজাতিক সংস্কৃতির মধ্যে বাংলাদেশের সংস্কৃতিকে মেলে ধরার আশাবাদ প্রকাশ করেন।