চিলমারী উন্নয়ন নাগরিক কমিটি নামে একটি অরাজনৈতিক সামাজিক সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। 

১৯ ডিসেম্বর এইচ এম রহিমুজ্জামান সুমনকে আহ্বায়ক, সহকারী অধ্যাপক নাজমুল হুদাকে সদস্য সচিব ও মো. আখতারুজ্জামান আসিফকে প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক  নির্বাচিত করে ২১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়।

এর পর সংগঠনের পক্ষ থেকে ১০টি দাবি তুলে ধরা হয়।

এসব দাবির মধ্যে রয়েছে— চিলমারী উপজেলা পৌরসভা ঘোষণা করা, কুড়িগ্রাম থেকে রমনা রেল স্টেশন পর্যন্ত বন্ধ থাকা ট্রেন সমূহ পূর্বের মতো দ্রুত চলাচলের ব্যবস্থা গ্রহণ, রমনা রেল স্টেশন থেকে রমনা নৌ ঘাট কিংবা জোড়গাছ বাজার পর্যন্ত রেল লাইন বর্ধিত করে নতুন স্টেশনের নাম চিলমারী রেল স্টেশন রাখা , চিলমারীতে সরকারি ভাবে বালু মহাল ঘোষণা করা, শিল্প কারখানা স্থাপন করা, চিলমারী নৌ-বন্দরের কাজ দ্রুত দৃশ্যমান করা, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের কাজ দ্রুত শুরু করা, চিলমারী হাসপাতাল ১০০ শয্যায় উন্নীত করা, মিনি স্টেডিয়ামের কাজ দ্রুত বাস্তবায়ন করা ও শিল্পকলা একাডেমির নিজস্ব ভবন স্থাপন করা। 

এসব দাবি সম্পর্কে নাজমুল হুদা বলেন, এসব দাবি চিলমারীর সাধারণ মানুষের প্রাণের দাবি। 

এ ব্যাপারে মো. আখতারুজ্জামান আসিফ বলেন, আমরা দ্রুত আমাদের সংগঠনের লক্ষ্য উদ্দেশ্য তুলে ধরব।

চিলমারী উন্নয়ন নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক এইচ এম রহিমুজ্জামান সুমন বলেন, আমাদের দাবি আরও বৃদ্ধি হবে। আমরা চিলমারীর উন্নয়নে সরকারের পাশে থেকে কাজ করতে চাই।