অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডের রাজধানী ব্রিসবেনে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার সাথে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫১ বছর উদযাপন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে ব্রিসবেনের ঐতিহ্যবাহী কুইন স্টিট মলের স্টেজে বাংলাদেশি শিশু, কিশোর এবং সাংস্কৃতিক কর্মীদের পরিবেশনায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। সেই সঙ্গে ব্রিসবেন সিটি হল এবং স্টোরি ব্রিজে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার রং লাল-সবুজ রঙে আলোকসজ্জা করা হয়।  

পুরো আয়োজনের প্রধান উদ্যোক্তা ছিল ব্রিসবেনে বসবাসরত বাংলাদেশিদের সংগঠন, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন ব্রিসবেন (BAB)। এ বছর ২৬ মার্চ বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের সুবর্ণ জয়ন্তীও পালন করা হয়।  পশ্চিমা মতাদর্শের অনুসরণকারী দেশগুলোর মধ্যে অস্ট্রেলিয়াই প্রথম বাংলাদেশকে একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয় ১৯৭২ সালে। এই স্মরণীয় মুহূর্তকে সামনে রেখে এবং বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়ার মধ্যকার চলমান বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় পৌঁছানোর লক্ষ্যে ব্রিসবেনে  স্বাধীনতা দিবস ২০২২-এর উদযাপনের সকল আয়োজন করে ব্রিসবেন সিটি কাউন্সিলের প্রত্যক্ষ পৃষ্ঠপোষকতায়।



অনুষ্ঠানে বাংলাদেশিদের সাথে  উপস্থিত ছিলেন  অস্ট্রেলিয়ান ফেডারেল গভর্নমেন্ট, কুইন্সল্যান্ড স্টেট গভর্নমেন্ট এবং কুইন্সল্যান্ড লোকাল গভর্নমেন্ট এর কয়েকজন মন্ত্রী, সংসদ সদস্য, কাউন্সিলর, ও অন্যান্য  নেতৃস্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। যাদের  মধ্যে উল্লেখ যোগ্য অস্ট্রেলিয়ান ইমিগ্রেশন মিনিস্টার- আলেক্স হ্বক (এমপি); কুইন্সল্যান্ডের মাল্টিকালচারাল মিনিস্টার - লিয়েন লিনার্ড (এমপি); কমিউনিটি ও ডিজিটাল ইকোনোমি মিনিস্টার  - লিয়েন ইনক (এমপি) ;কুইন্সল্যান্ড গভর্নমেন্ট অপজিশন লিডার - ডেভিড ক্রিসাফুল্লি (এমপি);  ব্রিসবেন সিটি লর্ড মেয়র  -  এদ্রিয়ান শ্রীনার; কনস্যুলার জেনারেল খন্দকার মাসুদুল আলম (কনস্যুলেট জেনারেল অফিস, সিডনি)। ব্রিসবেন সিটি হল, স্টোরী ব্রিজ, এবং কুইন্সল্যান্ডের পার্লামেন্ট হাউসকে লাল সবুজের আলোকসজ্জায় সজ্জিত করার সার্বিক তত্ত্ববধানে ছিলেন ড. জিশু দাস গুপ্ত। এছাড়াও এ আয়োজন সফলভাবে সম্পন্ন করতে বিশেষ ভূমিকা রাখেন বিএবির সভাপতি মো মাসুম ইফতেখারুল ইসলাম, সহ-সভাপতি শেখ বাসার উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক সাদাত আহমেদ।

এদিকে, আগামী ২৯শে মার্চ সন্ধ্যায় কুইন্সল্যান্ড পার্লামেন্টের স্পিকার কার্টিস পিট এর আমন্ত্রণে, মন্ত্রী পরিষদ ও পার্লামেন্ট সদস্যদের উপস্থিতিতে বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বিএবি'র কার্য নির্বাহী পরিষদের সদস্যরা এবং ব্রিসবেনের বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতৃস্থানীয় সদস্যদের সাথে একটি মতবিনিময় ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।  একই দিনে, বাংলাদেশের সম্মানে কুইন্সল্যান্ডের পার্লামেন্ট হাউসকে লাল সবুজের আলোকসজ্জায় সজ্জিত করা হবে।