যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের ডালাসে তিন দিনের ভ্রাম্যমান কনস্যুলার সেবায় ৮৪ হাজার মার্কিন ডলার আয় করেছে বাংলাদেশ দূতাবাস।

গত ১০-১২ জুন তিনদিনব্যাপী এক মোবাইল কন্সুলার ক্যাম্প অনুষ্ঠিত হয়। ওয়াশিংটন ডিসিতে অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক আয়োজিত উক্ত ক্যাম্পে কনস্যুলার সেবা প্রদান করা হয়। ক্যাম্প আয়োজনে সহায়তা করে বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব নর্থ টেক্সাস (ব্যান্ট) এবং বাংলাদেশী এক্সপ্যাট্রিয়েট সোসাইটি অব টেক্সাস (বেস্ট)।

তিন দিন ব্যাপি এই ক্যাম্পে ৮৯৭ জন আবেদনকারী বিভিন্ন সেবা গ্রহণ করেন এবং ৪৭,৯৩২.৫০ মার্কিন ডলার রাজস্ব আদায় হয়। এটি এ বছর আয়োজিত কন্সুলার ক্যাম্পসমূহের মধ্যে সেবাগ্রহীতার সংখ্যায় এবং রাজস্ব আদায়ে সর্বোচ্চ।

মোবাইল কন্সুলার ক্যাম্পে এনভিআর, পাওয়ার অব এটর্নি এবং এটেস্টেশন সেবা তাৎক্ষণিকভাবে প্রদান করা হয়। এছাড়াও, দ্বৈত নাগরিকত্ব সনদ এবং জন্মনিবন্ধন সনদপ্রাপ্তির জন্য আবেদন গ্রহণ করা হয়।

কোভিড-১৯ অতিমারির প্রকোপ হ্রাস পাওয়ায় এপ্রিল, ২০২২ হতে ওয়াশিংটন ডিসির বাংলাদেশ দূতাবাস পুনরায় মোবাইল কন্সুলার সার্ভিস প্রদান শুরু করে। গত দুই মাসে পাঁচটি শহরে (ফিলাডেলফিয়া, আটলান্টা, হিউস্টন, শিকাগো এবং ডালাসে) এ সেবা প্রদান করা হয়। উক্ত ক্যাম্পসমূহে মোট ৩২৯১ জন সেবা গ্রহণ করেন এবং এ থেকে সরকারের রাজস্ব আয় হয়েছে ১,৭২,৪৫৩.৫০ মার্কিন ডলার।

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশী এবং বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত আমেরিকান নাগরিকদের দোরগোড়ায় সেবা পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস, ওয়াশিংটন ডিসি নিয়মিতভাবে বিভিন্ন শহরে মোবাইল কন্সুলার সার্ভিস প্রদান অব্যাহত রাখবে।