পিরোজপুরের ইন্দুরকানীতে পদ্মা সেতু নিয়ে বাগবিতণ্ডায় মাদরাসা সুপারকে লাঞ্ছিত করেছেন স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা। সোমবার (২৭ জুন) ইন্দুরকানী বাজারে মাকসুদুল্লাহর ফার্মেসি দোকানের সামনে ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়, ওই ফার্মেসিতে বসে উপজেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন আকনসহ কয়েকজন চা পান করছিলেন এবং পদ্মা সেতুর উদ্বোধন অনুষ্ঠান নিয়ে আলোচনা করছিলেন।

এ সময় বাজার করতে আসা এসডি মদিনাতুল উলুম দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা মো. ওহিদুজ্জামান আসলে তাকে তারা বসতে দেন। আলোচনার একপর্যায় সুপার পদ্মা সেতু নিয়ে ‘প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে বিরূপ মন্তব্য’ করায় যুবলীগ নেতা হেলাল উদ্দিন তার ওপর চড়াও হয় এবং তাকে টেনেহিঁচড়ে থানায় দিকে নিয়ে যায়। পড়ে স্থানীয়রা তাকে ছাড়িয়ে রাখেন।

যুবলীগ নেতা হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘আমি মাদরাসার সুপারকে বসতে দেওয়ার পর পদ্মা সেতুর বিষয়ে আলোচনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে জড়িয়ে বিরূপ মন্তব্য করায় তাকে রাগারাগি করেছি।’

অভিযুক্ত সুপার ওহিদুজ্জামান জানান, ‘ফার্মেসিতে বসে পদ্মা সেতু নিয়ে কথা হচ্ছিল। পদ্মা সেতু আমাদের জন্য সৌভাগ্যের তবে “ওখানে কেহর একার টাকা নয়, আমাদেরও টাকা আছে” বললেই দোকানের সামনে বসে থাকা যুবলীগ নেতা হেলাল আমার ওপর চড়াও হয় এবং লাঞ্ছিত করে।’

এ বিষয় যুবলীগ নেতা হেলাল উদ্দিন ইন্দুরকানী থানায় মাদরাসার ওই সুপারের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন। ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এনামুল হক জানান, বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।