বোদায় বিয়ের দাওয়াত খেয়ে ৬০ জন হাসপাতালে

প্রকাশ: ০৮ অক্টোবর ২০১৯      

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কয়েকজন -সমকাল

পঞ্চগড়ের বোদায় বিয়ে বাড়ির বৌভাতের দাওয়াত খেয়ে নারী ও শিশুসহ ৬০ জনের বেশি মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। 

মঙ্গলবার তাদের পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতাল, বোদা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

স্থানীয়রা জানায়, তাদের সকলে সোমবার দুপুরে বোদা উপজেলার ময়দানদীঘি ইউনিয়নের ধনিপাড়া এলাকায় একটি বৌভাতের দাওয়াত খান। মঙ্গলবার সকাল থেকে সকলের বমি এবং পাতলা পায়খানার পাশাপাশি পেট ব্যাথা শুরু হয়। এ নিয়ে রোগীসহ স্থানীয়দেও মধ্যে আতঙ্ক দেখা দেয়। খবর পেয়ে সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ইউসুফ আলী ও সিভিল সার্জন ডা. নিজাম উদ্দীনসহ কর্মকর্তারা হাসপাতালে রোগীদের দেখতে যান এবং চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন। বর্তমানে সকলেই আশঙ্কামুক্ত বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, সোমবার দুপুরে ধনিপাড়া এলাকার সিরাজুল ইসলামের একমাত্র ছেলে মাজেদুল ইসলামের বৌভাতের দাওয়াত ছিল। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সকলেই এই বৌভাতের দাওয়াত খান। সোমবার মঙ্গলবার সকাল থেকে একে একে  অসুস্থ হতে থাকেন। এদের মধ্যে প্রথমে নারী ও শিশুসহ ৮ জনকে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি হয়। বিকেল থেকে বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে একই উপসর্গে আক্রান্ত রোগীদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। পরে বোদা, পঞ্চগড়সহ বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে অর্ধশত রোগীকে ভর্তি করা হয়।

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. সিরাজ উদ দৌলা পলিন বলেন, ফুড পয়জনিং বা বদ হজমের কারণে এমনটি হতে পারে। খাওয়ার ১২ থেকে ২৪ ঘণ্টা দেরিতেও এই উপসর্গ দেখা দিতে পারে। বর্তমানে সবাই আশঙ্কামুক্ত। তবে তাদের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। আতঙ্কের কারণেই অনেকে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তবে সকলকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে সকলেই আশঙ্কামুক্ত।