সাড়ে তিন ভরি স্বর্ণালঙ্কারের জন্য রাজশাহীর মুন্নুজান স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মায়া রাণী ঘোষকে হ্ত্যা করে তারই ছাত্র মিলন শেখ। মঙ্গলবার দুপুরে নগরীর কুমারপাড়া এলাকার ঘোষপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে মিলন শেখকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এছাড়া তার কাছ থেকে সাড়ে তিন ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করে পুলিশ।

বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারন চন্দ্র বর্মন বলেন, ‘মিলন শেখ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এছাড়া স্বর্ণালঙ্কার ও টাকার জন্য শিক্ষককে হত্যা করেছে বলে জানিয়েছে।’ 

তিনি আরও জানান, মায়া রাণী ঘোষ একজন মুন্নুজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক। মিলন শেখ প্রাথমিকে তার ছাত্র ছিলেন। সে পেশায় একজন রঙমিস্ত্রি। দেড় বছর আগে শিক্ষক রাণী ঘোষের বাড়িতে রঙের কাজ করেছিলেন তিনি। এছাড়া একই এলাকায় বাড়ি হওয়ায় ভাড়াটিয়া খোঁজার কথা বলে একাধিক বার রাণী ঘোষের বাড়িতে যেতেন মিলন। মঙ্গলবার সকালে বাড়ি ফাঁকা পেয়ে রাণী ঘোষকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে সে। এসময় স্বর্ণালঙ্কার, টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে পালিয়ে যায় মিলন। পরে গোয়েন্দা ও ডিজিটাল তথ্যের মাধ্যমে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। 

এছাড়াও মিলনের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মায়ারাণীর ফোন ও সীমকার্ড উদ্ধার করা হয় বলেও জানান তিনি।   

নিবারন চন্দ্র বর্মন জানান, এ ঘটনায় মিলনকে প্রধান আসামি করে গ্রেপ্তার দেখিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।