সিরাজগঞ্জের তাড়াশে ছাত্রকে যৌন হয়রানি ও বলাৎকারের চেষ্টার অভিযোগে রবিউল ইসলাম রবি (৪২) নামের একমাদ্রাসা শিক্ষককে আটকের পর পুলিশে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।  শনিবার গভীর রাতে উপজেলার সগুনা ইউনিয়নের সান্দুরিয়া গ্রামের কওমী মাদ্রাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

অভিযুক্ত রবিউল ইসলাম রবি উপজেলার সগুনা ইউনিয়নের মাঝিড়া গ্রামের মৃত মিয়াজান প্রামাণিকের ছেলে।

তাড়াশ থানার ওসি মো. ফজলে আশিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সকালে নির্যাতিত মাদ্রাসা ছাত্রের বাবা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরর পর আটককৃত ওই মাদ্রাসার শিক্ষক রবিউল ইসলাম রবিকে দুপুরে সিরাজগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ওসি মো. ফজলে আশিক জানান, গত মঙ্গলবার রাতে শিক্ষক রবিউল ইসলাম রবি মাদ্রাসার আবাসিক এক ছাত্রকে (১২)  নিজ ঘরে ডেকে নিয়ে যৌন হয়রানি ও বলাৎকারের চেষ্টা করেন। পরে ওই ছাত্র সেখান থেকে ছাড়া পেয়ে বাড়িতে গিয়ে বিষয়টি তার অভিভাবকদের জানায়। এরপর ওই ছাত্রের অভিভাবকরা ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে  ছাত্রকে যৌন হয়রানি ও বলাৎকারের চেষ্টার বিষয়টি মাদ্রাসার কমিটির সদস্যদের জানান। কমিটির সদস্যরা আলোচনা শেষে  ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় অভিযুক্ত শিক্ষক রবিউল ইসলাম রবিকে মাদ্রাসার একটি কক্ষে আটকে রেখে পুলিশে খবর দেন।