চট্টগ্রাম নগরীর বাকলিয়ায় চলন্ত বাসে তরুণীকে ধর্ষণচেষ্টা ও বাস থেকে লাফ দেওয়া মামলার আসামি জনি দাশের জামিন নামঞ্জুর করেছে আদালত। মঙ্গলবার চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ ড. জেবুনেচ্ছার আদালত এ আদেশ দেন। জনি বর্তমানে চট্টগ্রাম কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

চট্টগ্রাম মহানগর পিপি অ্যাডভোকেট ফখরুদ্দিন চৌধুরী বলেন, আসামি জনির জামিন আবেদন করা হয়। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন। গত ২৬ মে ভোরে চট্টগ্রাম জেলার হাটহাজারী উপজেলা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

গত ২৪ মে রাতে নগরীর বাকলিয়া থানার রাহাত্তারপুল থেকে ওই তরুণীকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয়রা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে জ্ঞান ফেরার পর তরুণী পুলিশকে জানিয়েছেন, চলন্ত বাসে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়। ধর্ষণের হাত থেকে বাঁচতে তিনি বাস থেকে লাফ দিয়েছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৫ মে পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ওই তরুণী ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ করেন।

ওই তরুণী নগরীর কালুরঘাট বিসিক শিল্প এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করেন। নগরের চান্দগাঁও এলাকায় তার বাসা। ওইদিন রাত ৯টার দিকে কারখানা ছুটির পর বাসায় ফেরার জন্য অন্য শ্রমিকদের সঙ্গে বাসে উঠেন। বাস বহদ্দারহাট এলাকায় আসার পর অন্য শ্রমিকরা নেমে যান। এ সময় পেছনের আসন থেকে সামনে এগিয়ে এসে নামার সময় তাকে না নামিয়ে বাস দ্রুত রাহাত্তারপুলের দিকে এগিয়ে যায়।

তরুণীর বরাত দিয়ে পুলিশ আরও জানায়, বাসের চালকের আসনে ছিলেন সহকারী। আর চালক দরজায় দাঁড়িয়ে ছিলেন। বাস যখন বহদ্দারহাট থেকে রাহাত্তারপুলের দিকে যেতে থাকে, তখন চালক তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন। এ সময় চলন্ত বাস থেকে লাফ দেন তরুণী।