কুড়িগ্রামে নৌকা ডুবে ৪ শিশু ও ১ নারীর মৃত্যু

প্রকাশ: ১৬ জুলাই ২০১৯     আপডেট: ১৬ জুলাই ২০১৯      

কুড়িগ্রাম ও উলিপুর প্রতিনিধি

দুর্ঘটনাস্থলে আশপাশের মানুষের ভিড় -সমকাল

কুড়িগ্রামের উলিপুরে নৌকা ডুবে চার শিশুসহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। গুরুতর আহত তিনজনকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেপে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার হাতিয়া ইউনিয়নের নতুন অনন্তপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নৌকায় থাকা প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন জানান, শিশুসহ তারা ২০-২৫ জন নৌকায় করে বন্যার পানিতে ডুবে যাওয়া স্বজনদের বাড়ি দেখতে যাচ্ছিলেন। অনন্তপুর গ্রামের একটি বাড়ির কাছাকাছি গেলে পানির তীব্র স্রোতে নৌকাটি তলিয়ে যায়। ডুবন্ত নৌকায় থাকা শিশু ও নারীসহ লোকজন বাঁচার চেষ্টা করেন। অনেকে সাঁতরে পাশের উঁচু স্থানে উঠে আসেন। এ সময় অন্য একটি নৌকা দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে তাদের উদ্ধারে সহায়তা করে। তবে পানিতে তলিয়ে যায় রূপামণি (৮), হাসিবুর ও রুনা বেগম (৩২)। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয়। ওই গ্রামের মনসুর আলীর ছেলে সুমন (৮), রাশেদের মেয়ে রুকুমণি (৭) নিখোঁজ হয়। পরে বিকেল ৬টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল দু'জনের মৃতদেহ উদ্ধার করে। গুরুতর অসুস্থ লাভলী বেগম, রুমি বেগম ও আয়শা সিদ্দিকাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় ওই গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

কুড়িগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক মঞ্জিল হক জানান, চার ঘণ্টা চেষ্টার পর নিখোঁজ দুই শিশুর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সোহেল সুলতান জুলকার নাইন কবির, উলিপুর থানার ওসি মোয়াজ্জেম হোসেন ও উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাঈদ সরকার।