গোবিন্দগঞ্জে ছাগলকে বলাৎকার, ধরা পড়ে লোকলজ্জায় কিশোরের আত্মহত্যা

প্রকাশ: ০৩ অক্টোবর ২০১৯      

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে ছাগলকে বলাৎকার করে ধরা পড়ে লোকলজ্জায় শাকিল মিয়া (১৭) নামের এক কিশোর গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 

পুলিশ জানায়, বুধবার দুপুরে উপজেলার দুরবস্ত ইউনিয়নের বিশ্বনাথপুর মোন্নাপাড়া গ্রামের জাফরুল ইসলামের ছেলে শাকিল মিয়া বাড়ির পার্শ্ববর্তী আখ ক্ষেতে একটি ছাগলকে বলাৎকার করে। ঘটনাটি স্থানীয় লোকজন দেখে শাকিলকে ধরে নিয়ে তার বাবা-মার কাছে সোপর্দ করে। এরপর শাকিলের মা শাকিলা বেগম ছেলেকে শাসন করে একটি ঘরে তালাবদ্ধ করে রাখেন। বিকেলে শাকিলা বেগম ঘরের তালা খুলে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় শকিলকে দেখতে পান। মায়ের চিৎকারে বাড়ির ও আশপাশের লোকজন ছুটে এসে শাকিলকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য গাইবান্ধা মর্গে পাঠিয়েছে।

গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এএম মেহেদী হাসান বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে শাকিল লোকলজ্জায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।