এরশাদের আসনের উপনির্বাচন নিয়ে সন্তুষ্ট নন বিএনপির প্রার্থী

প্রকাশ: ০৫ অক্টোবর ২০১৯      

রংপুর অফিস

সকালে রংপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্র পরিদর্শন করেন রিটা রহমান -সমকাল

দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়িতে পুলিশ দিয়ে অভিযান পরিচালনা ও পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগ করে রংপুর-৩ (সদর) আসনের উপনির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী রিটা রহমান বলেছেন, আমরা নির্বাচন নিয়ে সন্তুষ্ট হতে পারছি না। 

শনিবার সকালে রংপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সাংবাদিকদের তিনি জানান, ধানের শীষের নির্বাচনী প্রচারণায় থাকায় কারমাইকেল কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি রবিউল ইসলামকে পুলিশ গ্রেফতার করে নিয়ে গেছে। ভোটের আগের রাতে সদর উপজেলার সকল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে পুলিশ দিয়ে অভিযান পরিচালনা করেছে। আওয়ামী লীগের উপজেলার সভাপতি বিএনপি নেতাকর্মীদের ফোন করে বাড়ি থেকে সরে যাওয়ার জন্য বলেছে। এতে করেই পরিস্কার হওয়া যায়, পুলিশ দিয়ে নির্বাচনে বিএনপি নেতাকর্মীদের হয়রানি করা হয়েছে।  

রিটা রহমান বলেন, সাধারণ মানুষ ও ভোটারদের নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা উঠে গেছে। গত নির্বাচনে কি ধরনের দুর্নীতি হয়েছে মানুষ দেখেছ। গোটা বিশ্বের মানুষ এটার স্বাক্ষী। নির্বাচন কমিশন রাষ্ট্রের একটি প্রতিষ্ঠান। এই ধরনের প্রতিষ্ঠানের পক্ষপাতমূলক আচারণ দেশের নাগরিক ও রাষ্ট্রের জন্য লজ্জাজনক। 

তিনি বলেন, মানুষের নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা না থাকলেও একই নির্বাচন কমিশন একইভাবে নির্বাচন করছে। আমাদের ওপর ইভিএম চাপিয়ে দেওয়া হয়েছে। ইভিএমে নির্বাচন নিয়ে নির্বাচন কমিশনে বারবার অভিযোগ দিলেও আমরা কোন ফল পাইনি। আমরা নির্বাচন নিয়ে সন্তুষ্ট হতে পারছি না। ইউনিয়নগুলোতে আমাদের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। 

এ সময় জেলা বিএনপির সভাপতি সাইফুল ইসলাম, মহানগর বিএনপির সহসভাপতি সামসুজ্জামান সামু, সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম মিজু, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া ইসলাম জীমসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

গত ১৪ জুলাই ঢাকায় সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রংপুর-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। ১৬ জুলাই সংসদ সচিবালয় আসনটি শূন্য ঘোষণা করে।