পদ্মা সেতু উদ্বোধনের দিন দুপুর আড়াইটায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে ৩ শিশু জন্ম দিয়েছেন এক গৃহবধূ। পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে স্মরণীয় করে রাখতে তিন শিশুর নাম রাখা হয়েছে পদ্মা, সেতু ও উদ্বোধন। শিশুর বাবা রাজমিস্ত্রি মিজানুর রহমান। মা সুমি খাতুন (৩০)। তবে সিজারের পর ডাক্তাররা তিন পুত্রের নাম রেখেছেন হাসান, হোসাইন ও ইসমাইল।

রাজমিস্ত্রি মিজানুর রহমানের বাড়ি পাবনার সাথিয়া থানার আমাইকুলা গ্রামে। মিজানুর জানান, তার আরও তিনটি কন্যাসন্তান রয়েছে। তারা হলো মিম (১১), জিম (৮) ও সিন (৪)। প্রথম তিন কন্যা নরমাল হয়েছে। চতুর্থবার স্ত্রী গর্ভবতী হলে জানতে পারেন একসঙ্গে তিন সন্তান হবে।

২৩ জুন রাতে স্ত্রীকে ভর্তি করান রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডে। ২৫ জুন দুপুর আড়াইটায় সিজার করে একে একে তিন পুত্রসন্তান জন্ম দেন তার স্ত্রী সুমি।

মিজানুর রহমান আরও জানান, তার স্ত্রী ২৩ নম্বর গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি আছেন। আর তিন পুত্রকে রাখা হয়েছে ২৬ নম্বর শিশু ওয়ার্ডে। তিন কন্যার পর তিন পুত্র হওয়ায় তিনি ভীষণ খুশি। মা ও তিন নবজাতক সবাই সুস্থ আছে।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ জুন নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় একসঙ্গে তিন শিশুর জন্ম হলে তাদের নাম রাখা হয় স্বপ্ন, পদ্মা ও সেতু। এ বিষয়ে খবর প্রচার হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপহারস্বরূপ তাদের এক ভরি ওজনের তিনটি স্বর্ণের চেইনসহ ফলমূল ও ফুল পাঠিয়েছিলেন। এরপর ২১ জুন সকালে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জন্ম নেওয়া যমজ কন্যাশিশুর নাম রাখা হয়েছে পদ্মা ও সেতু।

এখানেই শেষ নয়। গত ২৩ জুন সকালে বরিশালে এক প্রসূতি একসঙ্গে তিন কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। ওই শিশুদেরও নাম রাখা হয় স্বপ্ন, পদ্মা ও সেতু। এছাড়া ২৪ জুন রাতে নেত্রকোণায় একটি হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে একসঙ্গে তিন শিশুর জন্ম হয়। নাম রাখা হয়েছে স্বপ্ন, পদ্মা ও সেতু।