বাংলা ভাষার প্রথম পেইড সাবস্ক্রিপশনভিত্তিক সাহিত্য পোর্টাল ফিকশন ফ্যাক্টরির উদ্বোধন ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার ফিকশন ফ্যাক্টরির রাজধানীর মোহাম্মদপুর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনে ফিকশন ফ্যাক্টরির সম্পাদক ফরিদ কবির পোর্টালটির লক্ষ্য ও পরিকল্পনা তুলে ধরেন। এতে আরও বক্তব্য রাখেন- ফিকশন ফ্যাক্টরির প্রকাশক আশিক উস সালেহীন এবং ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ও প্রধান উদ্যোক্তা শোয়েব সর্বনাম।

ফরিদ কবির বলেন, 'ফিকশন ফ্যাক্টরির প্রধান লক্ষ্য নতুন পাঠক সৃষ্টি করা। এছাড়া একদল তরুণ লেখক ও অনুবাদক সৃষ্টির লক্ষ্যেও কাজ করব আমরা। নাম ফিকশন হলেও এখানে সাহিত্যের সবকিছু থাকবে। উপন্যাস, ছোটগল্প, কবিতা, ছড়া, শিশু-কিশোর সাহিত্য, বিশ্ব ক্ল্যাসিকের অনুবাদ এবং বিশ্ব লেখকদের সংবাদ ও সাক্ষাৎকারও থাকবে আমাদের পোর্টালে।'

তিনি আরও বলেন, 'শিল্প ও সাহিত্য বিষয়ক বিভিন্ন সভা, সেমিনার ও ওয়ার্কশপ আয়োজনের মধ্য দিয়ে প্রতিশ্রুতিশীল তরুণ লেখকদের উৎসাহিত করারও পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। পাশাপাশি নির্বাচিত লেখা নিয়ে প্রতিবছর একটি প্রিন্ট ভার্সন প্রকাশ করা হবে।'

আশিক উস সালেহীন বলেন, 'এটি একটি সাবস্ক্রাইবারভিত্তিক সাহিত্য পত্রিকা, যেখানে পেইড কিংবা ফ্রি যে কোনো ধরনের সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে গ্রাহক হওয়া যাবে। ডিসেম্বর মাসজুড়ে মাত্র ৯৯৯ টাকায় ফিকশন ফ্যাক্টরিতে এক বছরের জন্য পেইড সাবস্ক্রাইবার হওয়া যাবে।'

শোয়েব সর্বনাম বলেন, 'ফিকশন ফ্যাক্টরিই বাংলাদেশে প্রথম ওয়েব ফিকশন সেকশনটি চালু করল। এখানে লেখার পাশাপাশি অডিও-ভিডিও কনটেন্টও থাকবে। পেইড সাবস্ক্রাইবারদের জন্য প্রতিমাসে বিশ্বসাহিত্যের জনপ্রিয় সব অনুবাদ ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করা হবে। এমনকি ফ্রি গ্রাহকরাও ফিকশন ফ্যাক্টরিতে পাবেন সমসাময়িক সাহিত্য ও দুনিয়ার প্রতিদিনকার খবরের নিয়মিত আপডেট। শিশুসাহিত্য নিয়েও আরও একটি পোর্টাল তৈরির চিন্তা করছি আমরা। আর শিগগিরই ফিকশন ফ্যাক্টরির অ্যাপও চালু করা হবে।'

আয়োজকরা জানান, www.fictionfactory.org এ ওয়েবসাইটে ব্রাউজ করে ফিকশন ফ্যাক্টরিতে নিবন্ধন করা যাবে। পৃথিবীর যে কোনো প্রান্ত থেকে ভিসা কার্ড, মাস্টার কার্ড, এমেক্স এবং মোবাইল ব্যাংকিং বিকাশ, নগদ ও রকেট থেকেও পেমেন্ট করে নিবন্ধিত হওয়া যাবে। এছাড়া ফিকশন ফ্যাক্টরি রাইটার্স এজেন্সি হিসেবেও কাজ করবে।

মন্তব্য করুন