ঈদের আগে শেষ কর্মদিবসে সোমবার প্রায় শতভাগ পোশাক কারখানায় বোনাস পরিশোধ করা হয়েছে। সোমবার পর্যন্ত বাকি থাকা জুনের বেতনও পেয়েছেন শ্রমিকরা। বেতন-বোনাস পরিশোধ শেষে এক রকম অনশ্চিয়তার মধ্যেই প্রায় ১০ দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। আগামী ১ আগস্ট কারখানা খোলার সম্ভাব্য তারিখ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে শ্রমিকদের। 

তবে সরকারের পক্ষ থেকে কোনো সিদ্ধান্ত পাওয়া গেলে ঘোষিত তারিখের আগে বা পরে কারখানা খোলা হতে পারে। সেক্ষেত্রে শ্রমিকদের মোবাইলে জানিয়েছে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

ঈদুল আজাহা উপলক্ষে বিজিএমইএ’র কারখানার বেতন-বোনাস সংক্রান্ত পরিদর্শন প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, ঈদের শেষ কর্মদিবসে সোমবার পর্যন্ত বোনাস পরিশোধ করেছে ৯৯ দশমিক ৭৪ শতাংশ। মোট এক হাজার ৯০৭টি কারখানার শ্রমিকরা বোনাস পেয়েছেন। মাত্র ৫টি কারখানায় বিকেল পর্যন্ত বেতন-বোনাসের কোনো সুরাহা হয়নি। তবে শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধের প্রক্রিয়ায় আছে কর্তৃপক্ষ। 

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিজিএমইএ’র সক্রিয় কারখানার সংখ্যা এক হাজার ৯১২টি। এর মধ্যে ঢাকায় এক হাজার ৬৬৬টি এবং চট্টগ্রামে ২৪৬টি সক্রিয় কারখানা রয়েছে।

জানতে চাইলে বিজিএমইএ সহ-সভাপতি শহিদুল্লাহ আজিম সমকালকে বলেন, এবার ঈদেও বেতন-বোনাস নিয়ে কোনো রকম জটিলতা ছাড়াই শেষ করা সম্ভব হয়েছে। তবে লকডাউনে কারখানা বন্ধ থাকলে আগামী মাসে বেতন পরিশোধ করা নিয়ে হিমশিম খেতে হবে উদ্যোক্তাদের।