একাত্তরের ১৬ ডিসেম্বর রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান) প্রায় ৯৪ হাজার সেনাসহ আত্মসমর্পণ করে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। কিন্তু তখনও পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীমুক্ত হয়নি রাজধানীর মিরপুর। রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতার ৪৬ দিন পর বাহাত্তরের ৩১ জানুয়ারি মুক্ত হয় রাজধানীর মিরপুর এলাকা। মিরপুরের ওই যুদ্ধে জিয়াউল হক লোদী, সেলিমসহ অনেক মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন। এ জন্য মিরপুরকে বলা হয় বাংলার শেষ রণাঙ্গন।

মিরপুর মুক্ত দিবস উপলক্ষে গত ২৮ জানুয়ারি থেকে মিরপুর সাংস্কৃতিক ঐক্য ফোরাম চার দিনব্যাপী নানা কর্মসূচি পালন করে আসছে। যার মধ্যে রয়েছে- গুণীজন সংবর্ধনা, কথামালা, কবিতা পাঠ, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃৃতিক অনুষ্ঠান। আজ মঙ্গলবার বিকেলে মিরপুর পল্লবী ক্লাব মাঠে সমাপনী অনুষ্ঠান হবে।