হেমন্ত চলছে। বাতাসে শীতের আমেজ। এ সময়ের সকাল কিংবা বিকেলের নাশতার টেবিলে মজাদার পিঠা রাখতে পারেন। রেসিপি দিয়েছেন ফাহমিদা মান্নান মৌসুমি

মাশরুম চিকেন পাটিসাপটা
চিকেন ফিলিং তৈরির উপকরণ :হাড় ছাড়া মুরগির মাংস ১ কাপ, বাটন মাশরুম আধা কাপ, তেল প্রয়োজনমতো, সয়া সস ২ চা চামচ, লবণ প্রয়োজনমতো, কাঁচামরিচ প্রয়োজনমতো, টমেটো কেচআপ ও চিলি সস স্বাদ অনুযায়ী, কর্ন ফ্লাওয়ার ১ চা চামচ, কালো গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, আদা-রসুন বাটা ১/৪ চা চামচ।
পাটিসাপটা তৈরির উপকরণ :ময়দা ২ কাপ, তেল বা মাখন ২ টেবিল চামচ, লবণ প্রয়োজনমতো, বেকিং পাউডার ১ চা চামচ, চিনি ১ চা চামচ, ডিম বড় ২টি, পানি প্রয়োজনমতো, দুধ ২ টেবিল চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি :চিকেন ফিলিং তৈরির জন্য তেল গরম করে মাশরুম ও মাংস দিন। খুব সামান্য আদা-রসুন বাটা ও লবণ দিয়ে ভাজুন। সয়া সস, কেচআপ ও চিলি সস দিয়ে ভাজুন। কর্ন ফ্লাওয়ার সামান্য পানিতে গুলে দিয়ে দিন। গোলমরিচ ও কাঁচামরিচ দিন। মাখা মাখা হলে নামিয়ে নিন। এতে আপনি ক্যাপসিকাম, মটরশুঁটি ইত্যাদিও ব্যবহার করতে পারবেন। পাটিসাপটা তৈরির জন্য ডিম ভালো করে ফেটে ময়দা ও পানি ছাড়া বাকি উপাদান দিয়ে ভালো করে মেশান। ময়দা প্রয়োজনমতো পানি দিয়ে মেশাতে হবে। গোলা বেশি ভারী হবে না। সব মিশিয়ে ৩০ মিনিট রেখে দিন। এবার প্যানে অল্প গোলা দিয়ে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে পাটিসাপটার রুটির মতো তৈরি করতে হবে। চারপাশ বাদামি হয়ে একটু উঠে এলে উল্টিয়ে দিন। এবার এর এক পাশে অল্প চিকেন ফিলিং দিয়ে পাটিসাপটার মতো রোল করে বানিয়ে নিন।

নারকেল ভাজাপুলি
উপকরণ :চালের গুঁড়া ১ কাপ, কোরানো নারকেল পরিমাণমতো, খেজুরের গুড়, দুধ, ঘি, তেল ও লবণ স্বাদমতো।
প্রস্তুত প্রণালি :একটি কড়াইয়ে সামান্য পরিমাণ ঘি নিন। কড়াই গরম হলে কোরানো নারকেল দিয়ে ভেজে নিন। কিছুক্ষণ পর খেজুরের গুড় ও দুধ দিয়ে নেড়ে আবার ভাজুন। বাদামি হয়ে এলে কড়াই চুলা থেকে নামিয়ে নিন। কিছুক্ষণ পর খেজুরের গুড় ও দুধ দিয়ে নেড়ে ভেজে নিন।
এরপর এক কাপ পানি হাঁড়িতে বসিয়ে দিন, পানি ফুটে উঠলে স্বাদমতো লবণ দিন। ফুটন্ত পানিতে এক কাপ চালের গুঁড়া দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিন। কিছুক্ষণ পর নামিয়ে ভালো করে মথে নিন। রুটি বানিয়ে এর ভেতর নারকেলের পুর দিয়ে ইচ্ছেমতো ডিজাইন করে নিন। চুলায় কড়াই বসিয়ে তাতে তেল গরম করে পিঠাগুলো ভাজুন।

দুধ চিতই পিঠা
উপকরণ :চিতই পিঠা ১০ পিস, খেজুরের গুড় পরিমাণমতো, নারকেল কুচি আধা কাপ।
প্রস্তুত প্রণালি :চিতইয়ের গোলাতে নারকেল কুচি মেশাতে হবে। ছাঁচে গোলা ঢেলে ঢেকে দিন। ঢাকনার ওপরে অল্প পানি ছিটান। ৩-৪ মিনিট পর নামিয়ে নিন। পিঠা নরম ও তুলতুলে করার জন্য চিতইয়ের মিশ্রণ ব্লেন্ডারে তৈরি করুন। এরপর চালের গুঁড়ার সঙ্গে ভাত চটকে মেশাতে পারেন। এবার দুধ জ্বাল দিয়ে ঘন করুন। একটু ঠান্ডা করে খেজুরের গুড় মেশান। গুড় গলে গেলে চিতই পিঠাগুলো দিয়ে দিন। এভাবে গুড়-দুধের মিশ্রণে এক ঘণ্টা পিঠা ভিজিয়ে রাখার পর পরিবেশন করুন।

মালাই মুগপাকন
উপকরণ :মুগডাল ও মসুর ডালের মিশ্রণ ১ কাপ, ময়দা ১ কাপ, চিনি ১ কাপ, দুধ ১ লিটার, ছোট এলাচ গুঁড়া ১ চামচ, ঘি ২ টেবিল চামচ, ছোট এলাচ ৪টি, সাদা তেল ১ বাটি, লবণ স্বাদমতো, কেশারি ফুড কালার ১ চিমটি।
প্রস্তুত প্রণালি :ডাল হালকা ভেজে ভিজিয়ে রেখে মিহি করে বেটে নিন। কড়াইয়ে ২ কাপ দুধ দিয়ে ফুটে উঠলে এর মধ্যে ময়দা আর ডাল বাটা দিয়ে নাড়ূন। ছোট এলাচ গুঁড়া ও ঘি মিশিয়ে নেড়ে মণ্ড বানান। এবার ওই মণ্ড থেকে ছোট ছোট বল বানিয়ে একটু চেপে একটি কাঠি দিয়ে চারদিক ধরে চেপে চেপে নকশা বানিয়ে নিন। তেল গরম করে সেগুলো ভেজে নিন। অন্য পাত্রে রস বানাতে হবে। এ জন্য চিনি, এক কাপ পানি ও ছোট এলাচ ভেঙে দিন। ওই ভাজা পিঠাগুলো আধাঘণ্টার মতো রসের মধ্যে ডুবিয়ে রাখুন। পাত্রে দুধ ফুটিয়ে ঘন করে কেশারি রং মিশিয়ে মালাই বানাতে হবে। রস থেকে পিঠাগুলো তুলে সাজিয়ে এর ওপর মালাই ঢেলে দিন।