ভাষাকে মা বলে ডাকি মাকে বলি ভাষা
দারুণ পিপাসা এই দুটি শব্দ ঘিরে আবর্তিত
আমার বাংলাভাষা তুমিতো মায়ের মুখ তুলনারহিত
প্রতিটি ফাল্কগ্দুনে তুমি স্মরণ করিয়ে দাও মায়ের মহিমা।

আমি হতভাগা দেখো কী রকম উদাসীন ভুলে থাকি মাকে
যখন ফাল্কগ্দুনে ডাকে কোকিল ভাষার নামে, ফোটে কৃষ্ণচূড়া
পলাশ-শিমুল যেন আমার ভায়ের রক্তে রাঙা সেই লাল
অমর একুশে সেই রক্ত সম্পর্কের মধ্যে আপন সত্তাকে খুঁজে পাই।

চর্যার প্রাচীন কবি বাঙালি ভুসুকু আর বরকত সালাম
তারা সকলেই এক-অভিন্ন নাম এ বাংলায়
রফিক বা শফিউর থোকাথোকা শিমুল-পলাশ হয়ে আসে
বসন্তের প্রবল বাতাসে; আমাদের মাকে তারা মা বলেই ডাকে।

অচেতন হয়ে আছি নগদ লাভের লোভে ভ্রান্তি-কোলাহলে
জাতির পিতার প্রিয় সোনার বাংলার কাদাজলে মিশে আছে
কতো গৌরবের স্মৃতি! শহিদের ভাই আমি নিজেকে চিনি না!
-এই গ্লানি ভেসে ওঠে প্রতিটি ভাষার মাসে নিজের ভেতরে

স্বাধীনতা আর রক্ত যে-রকম একাকার সোনার বাংলায়
তেমনই অভিন্ন সত্তা মাতৃভূমি-ভাষা তুমি
মা তোমাকে কখনো ভুলব না।

বিষয় : ভাষাকে মা বলে ডাকি

মন্তব্য করুন