চলতি মাসের শুরুতে কী লঙ্কাকাণ্ডই না হলো ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে। কোয়ারেন্টাইন বিধিনিষেধ ভাঙায় শুরুর সাত মিনিটের মাথায় ব্রাজিলের স্বাস্থ্য বিভাগ আনভিসার হস্তক্ষেপে পণ্ড হয়ে যায় ম্যাচটি। আর্জেন্টিনার চার খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে তখন কোয়ারেন্টিনবিধি ভঙ্গের অভিযোগ এনেছিল আনভিসা।

আবারও কোভিড নীতিমালা ভঙ্গ করে শাস্তির মুখে আর্জেন্টাইন ছয় খেলোয়াড়। তবে এবার ফুটবলার নয়, নিয়ম ভেঙে নিষিদ্ধ হয়েছেন ছয় রাগবি খেলোয়াড়।

চার জাতি রাগবি চ্যাম্পিয়নশিপ হচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য কুইন্সল্যান্ডের গোল্ড কোস্টে। আর্জেন্টিনার ওই ছয় খেলোয়াড় ও দলের অন্য দুই সদস্য কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়াই পাশের রাজ্য নিউ সাউথ ওয়েলসের বায়রন বে শহরে বেড়াতে গিয়েছিলেন। এতেই কপাল পুড়েছে তাদের। বায়রন বে থেকে ফেরার পথে কুইন্সল্যান্ড ও নিউ সাউথ ওয়েলসের সীমান্তে আর্জেন্টাইনদের আটকে দেয় কর্তৃপক্ষ। করোনাবিধি অনুসারে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা থেকে কেউ কুইন্সল্যান্ডে ঢুকতে চাইলে যথাযথ কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিতে হয় এবং বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টিনে যেতে হয়।

আর্জেন্টাইন খেলোয়াড়দের এমন কাণ্ডের পর এক বিবৃতিতে টুর্নামেন্ট কতৃপক্ষ জানায়, 'এক রাজ্য থেকে অন্য রাজ্যে ভ্রমণের এই ঘটনায় কুইন্সল্যান্ড রাজ্য সরকারের স্বাস্থ্যবিধি সরাসরি লঙ্ঘিত হয়েছে। রাগবি চ্যাম্পিয়নশিপের জৈব সুরক্ষাবলয়কেও ঝুঁকির মুখে ফেলে দিয়েছে তারা। যারা আইন ভেঙেছে, তারা এই টুর্নামেন্টে আর খেলতে পারবে না।'

আগামী শনিবার অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে খেলবে আর্জেন্টিনা। তার আগে ছয় জন খেলোয়াড়কে হারিয়ে বেশ বিপদেই পড়েছে দেশটি।