আফগানিস্তানে নারী ভলিবল খেলোয়াড়ের শিরশ্ছেদের খবরটি সঠিক নয় এবং তালেবান কোনো নারী খেলোয়ারের শিরশ্ছেদ করেনি বলে জানা যাচ্ছে। দলের কোচের বরাত দিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে আফগানিস্তান জাতীয় জুনিয়র নারী ভলিবল দলের সদস্য মেহজাবিন হাকিমির শিরশ্ছেদের যে খবর দেওয়া হয়েছিল, তা সঠিক নয়।

ওই খবরে বলা হয়েছিল, অক্টোবরের শুরুতে তাকে গলা কেটে হত্যা করে তালেবান এবং বিষয়টি এতোদিন গোপন ছিল। তবে পরে ঘটনাটি যাচাই করে অলট নিউজ ডট ইন জানায়, ওই তথ্য সঠিক নয়। মেহজাবিনকে হত্যা করা হয়নি। তিনি বাগদত্তা ছিলেন এবং গেল ৬ আগস্ট কাবুলে হবু স্বামীর বাসার গোসলের ঘর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আত্মহত্যা করেছেন। মেহজাবিনের এক স্বজনকে উদ্ধৃত করে একথা জানায় অলট নিউজ। একই ধরনের কথা বলা হয়েছে, ইন সাইট দ্যা গেমস ডট বিজ-এর প্রতিবেদনেও।

দ্য সান ডট কো ডট ইউকের প্রতিবেদনেও বলা হয়েছে, মেহজাবিন হাকিমির পরিবার থেকে বলা হয়েছে তালেবান তাকে হত্যা করেনি।  

কাবুল মিউনিসিপ্যালিটি ভলিবল ক্লাবে খেলতেন মাহজবিন। দলের তারকা খেলোয়াড় ছিলেন তিনি। ১৯৭৮ সালে আফগানিস্তানে নারী ভলিবল দল গঠিত হয়। দেশটির নারীদের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয় ভলিবল খেলা।

সংশোধনী-

তালেবান আফগানিস্তানের নারী ভলিবল খেলোয়াড় মেহজাবিন হাকিমির শিরশ্ছেদ করেছে বলে প্রথমে যে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়েছিল সেটি মেইল অনলাইনটাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনকে সূত্র হিসেবে ধরে। ওই প্রতিবেদনে দ্য পারসিয়ান ইন্ডিপেন্ডন্টকে উদ্ধৃত করা ছিল। কিন্তু তাদের প্রতিবেদন সঠিক নয় বলে এখন জানা যাচ্ছে।