আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন নেদারল্যান্ডসের বোলার পিটার সিলার। প্রায় বছর দুয়েক ধরে পিঠের চোটকে সঙ্গী করেই খেলছিলেন তিনি। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতেও তীব্র ব্যাথা অনুভব করেন। শেষ পর্যন্ত বাধ্য হয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন ডাচদের অধিনায়ক পিটার সিলার।

বিদায়ী বার্তায় আক্ষেপ করে পিটার সিলার বলেন, '২০২০ সাল থেকে আমার পিঠের সমস্যা খারাপ হতে হতে এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে, প্রচণ্ড আক্ষেপ নিয়েই বলতে হচ্ছে, নিজের সবটুকু আমি আর দিতে পারছি না।'

২০০৬ সালে নেদারল্যান্ডসের হয়ে অভিষেক হয়েছিল পিটারের। ২০১৮ সালে দলের অধিনায়ক হয়েছিলেন তিনি। নেদারল্যান্ডসের হয়ে ৫৬টি এক দিনের ম্যাচে ৩২২ রান করেছেন তিনি। নিয়েছেন ৫৫টি উইকেট। ৭৭টি টি২০ ম্যাচে পিটারের রান ৫৯১। টি২০-তে ৫৮টি উইকেট নিয়েছেন পিটার। ১৭ জুন ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম এক দিনের ম্যাচে শেষ বার মাঠে নেমেছিলেন পিটার। সেই ম্যাচে ইংল্যান্ড ৪৯৮ রান করেছিল, যা এক দিনের ক্রিকেটে বিশ্বরেকর্ড। পিঠের ব্যথায় দ্বিতীয় ম্যাচে দলে ছিলেন না পিটার।

নেদারল্যান্ডস দলে অধিনায়ক হিসেবে পিটার সিলারের স্থলাভিষিক্ত হবেন স্কট এডওয়ার্ডস। ২৫ বছর বয়সী এই উইকেটরক্ষক দীর্ঘদিন ধরেই নেদারল্যান্ডসের ব্যাটিং লাইন আপের অন্যতম ভরসা হয়ে আছেন।

অধিনায়ক হিসেবেও বেশ সফল ছিলেন পিটার সিলার। তার অধীনেই ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ডাচরা।