আগামী ২ থেকে ৭ ডিসেম্বর দুবাইতে অনুষ্ঠিত হবে 'এশিয়ান পাওয়ারলিফটিং চ্যাম্পিয়নশিপ ২০২২।' প্রতিযোগিতায় প্রথমবারের মতো অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ। ১০ সদস্যের পাওয়ারলিফটিং দলটি আগামী ৩০ নভেম্বর দুবাইয়ের উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে।

প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশের অংশগ্রহণ ও প্রত্যাশার কথা জানাতে শনিবার বাংলাদেশ পাওয়ারলিফটিং অ্যাসোসিয়েশন এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা ও মহাসচিব মোমিনুল হক, সহ সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমানসহ প্রতিযোগীরা উপস্থিত ছিলেন।

মোমিনুল হক বলেন, দেশে পাওয়ার লিফটিং একেবারেই নতুন। অনেকে খেলাটি সম্পর্কে জানেনও না। তবে যারা চর্চা করছেন তারা আন্তরিকভাবেই করছেন। তাদের মধ্য থেকে নির্বাচিতদের নিয়ে এবারের চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য দল গঠন করা হয়েছে। বাংলাদেশ দলের সদস্যরা দীর্ঘদিনের সাধনায় নিজেদের প্রস্তুত করেছেন। ভালো ফলাফলের দৃঢ় প্রত্যয় নিয়েই প্রতিযোগিতায় অংশ নেবেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, এশিয়ার ২৯টি দেশের মোট ৪৭০ জন খেলোয়াড় এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবেন। বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ৯ জন খেলোয়াড় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করবেন। পুরুষ সাব-জুনিয়র ৭৪ কেজি শ্রেণিতে অংশ নেবেন রাইয়ান রহমান এবং ৬৬ কেজিতে আরাফ্‌ফু ইসলাম সাদ। জুনিয়র ৭৪ কেজিতে অংশ নেবেন তাহসিন মুনতাকা, ৯৩ কেজির শ্রেণিতে রাহাত রহমান ও আতিকুর সিফাত। ওপেন ক্যাটাগরিতে ৬৬ কেজিতে জিহান ওয়াদুদ, সৌরভ রয় এবং আদিত্য পারভেজ অংশগ্রহণ করবেন। মেয়েদের ৮৪+ কেজি ওপেন শ্রেণিতে প্রতিযোগিতা করবেন ফাতেমা নিশু।

বাংলাদেশ পাওয়ারলিফটিং অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা ও মহাসচিব মোমিনুল হক বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার পাশাপাশি বাংলাদেশের একমাত্র লাইসেন্স প্রাপ্ত পাওয়ারলিফটিং রেফারি হিসেবে এশিয়ান পাওয়ারলিফটিং চ্যাম্পিয়নশিপ পরিচালনা করবেন।

বাংলাদেশের লক্ষ্য সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, সীমিত সুযোগ সুবিধা থাকার পরেও, প্রোপার ইকিউপমেন্ট এবং স্পন্সরের অভাবে থেকেও বাংলাদেশ পাওয়ারলিফটিং যেভাবে এগুচ্ছে তা এক কথায় চমৎকার। 

এছাড়া বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা থেকে কমপক্ষে দুটি পদক আশা করছে বলেও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

বিষয় : এশিয়ান পাওয়ারলিফটিং চ্যাম্পিয়নশিপ পাওয়ারলিফটিং

মন্তব্য করুন