ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

ফাইনালে যেতে ২১২ দরকার যুবাদের

ফাইনালে যেতে ২১২ দরকার যুবাদের

ছবি: আইসিসি

অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশ: ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ০৫:৪৮

দক্ষিণ আফ্রিকায় খুব একটা সুখস্মৃতি নেই বাংলাদেশ জাতীয় দলেরও। প্রথম টি-২০ বিশ্বকাপে এই দক্ষিণ আফ্রিকায় নিজেদের প্রথম ম্যাচেই জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। অন্য সফরগুলোয় ফল কেবলই হতাশার। তবে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকায় দুর্দান্ত ক্রিকেট উপহার দিচ্ছেন যুবারা। ফাইনালে যাওয়ার লড়াইয়ে তারা নিউজিল্যান্ডকে থামিয়েছেন ২১১ রানে।

যুবা বিশ্বকাপে এটি বাংলাদেশের দ্বিতীয় সেমিফাইনাল ম্যাচ। ২০১৬ সালে ঘরের মাঠের আসরে হঠাৎ করে জ্বলে ওঠা ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হেরেছিলেন মিরাজ-শান্তরা। নয়তো সেবারও ফাইনালে যাওয়ার সুযোগ ছিল যুবাদের। এবার সেই আক্ষেপ মেটানোর পথে প্রতিপক্ষটা নিউজিল্যান্ড। যারা শেষ দুই ম্যাচে কষ্টের জয় তুলে নিয়ে সেমিফাইনাল খেলছে। দীর্ঘ সময় পরে আবার ফাইনাল জয়ের স্বপ্ন দেখছে।

টস জিতে বাংলাদেশ অধিনায়ক আকবর আলী এ ম্যাচে শুরুতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন। পসেফস্ট্রুমে শেষ ক'দিন ছিল বৃষ্টি। উইকেট তাই স্লো এবং বোলিং সহায়ক। শরিফুল-শামিমরা শুরুতে উইকেটের পূর্ণ ব্যবহার করেন। পেস-সুইং এবং স্পিন ঘূর্ণি দিয়ে চেপে ধরে কিউই যুবাদের। তবে হুইলার গ্রিনারের ৭৫ রানে ভর করে ৮ উইকেট হারিয়ে দুইশ' ছাড়ানো পুঁজি পায় তারা।

নিউজিল্যান্ড যুবাদের হয়ে চারে নামা লিন্ডস্টোন খেলেন ৪৪ রানের ইনিংস। তবে দলের আর কেউ সেভাবে রান পাননি। ফার্গুন লেলমান ২৪ রান করে আউট হন। ওলি হোলাইট করেন ১৮ রান। এছাড়া শেষে জো ফিল্ড ১২ রান করেন। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে দারুণ বোলিং করেন বাঁ-হাতি পেসার শরিফুল। তিনি ১০ ওভারে ৪৫ রান দিয়ে নেন ৩ উইকেট। 

এছাড়া শামিম হোসাইন ৬ ওভারে ৩১ রান দিয়ে তুলে নেন ২ উইকেট। রাকিবুল হাসান ১০ ওভারে খরচা করেন ৩৩ রান। উইকেট নেন একটি। দলে থাকা অন্য বাঁ-হাতি স্পিনার হাসান মুরাদ ১০ ওভারে ৩৪ রান দিয়ে তুলে নেন দুই কিউই যুবাকে। দক্ষিণ আফ্রিকা অবশ্য যুবা বিশ্বকাপের জন্য রান প্রসবা নয়। প্রথম ইনিংসের গড় রান দুইশ' কাছাকাছিই। তামিম-ইমনদের তাই বড় পরীক্ষা দিতে হতে পারে এই রানেও।

আরও পড়ুন

×