ঢাকা বুধবার, ২২ মে ২০২৪

নারী ফুটবল

ফেসবুক-টুইটারে সাবিনা কৃষ্ণাদের জয়গান

ফেসবুক-টুইটারে সাবিনা কৃষ্ণাদের জয়গান

ম্যাচের আগে বুকে হাত রেখে জাতীয় সংগীত। এর পরের অংশ এখন ইতিহাস। গোটা দেশের মানুষ এখন সাবিনাদের আনন্দের সঙ্গে একাত্ম সংগৃহীত

সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১২:০০ | আপডেট: ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১৩:৫৮

'ঐ নূতনের কেতন ওড়ে কালবোশেখীর ঝড়/ তোরা সব জয়ধ্বনি কর!' জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এভাবেই জয়গান গেয়েছেন নতুনের। তাঁর চিরায়ত এই কবিতার ঝংকারের মতোই দুর্দান্ত এক ঝোড়ো ম্যাচ খেলে দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবলে সেরার মুকুট জিতেছে বাংলার বাঘিনীরা। ফেসবুক-টুইটারের মতো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাই এখন চলছে সাবিনা-কৃষ্ণাদের বন্দনা। মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রী, ক্রিকেট তারকা, লেখক, চিত্রপরিচালক, অভিনেতা-অভিনেত্রী, কণ্ঠশিল্পী ও বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরা বিজয়ী দলকে জানিয়েছেন প্রাণঢালা অভিনন্দন। বিশেষ করে সমাজ ও পারিপার্শ্বিক নানা প্রতিকূলতা ডিঙিয়ে আন্তর্জাতিক মঞ্চে নিজেদের প্রমাণ করার এই অভিযাত্রাকে সম্মান জানাচ্ছেন সবাই। সেই সঙ্গে নারী খেলোয়াড়দের বেতন বৈষম্য দূর, সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো ও তাঁদের বিকাশের পথ প্রশস্ত করার কথাও উঠে এসেছে।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ ফেসবুকে লিখেছেন, 'এই জয় শুধু একটি টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়নশিপের নির্ধারণী ম্যাচ নয়; আমার কাছে তার থেকেও বেশি কিছু। পরিবার, সমাজ ও পরিস্থিতির বিপরীতে দাঁড়িয়ে আমাদের মেয়েরা যে সাহস ও একাগ্রতা দেখিয়েছে, তা এককথায় অসাধারণ। সাবিনাদের দেখে আগামীতে আরও অনেক কিশোরী-নারী খেলাধুলায় আগ্রহী হবে। যে কোনো চ্যালেঞ্জ নিতে তারা প্রস্তুত হবে। আমরা এমন বাংলাদেশই চাই। সমস্ত সাম্প্রদায়িকতা, কুসংস্কার ভেঙে আমাদের মেয়েরা সামনে এগিয়ে যাক। জয় বাংলা ...।'
তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক মেয়েদের অভিনন্দন জানিয়ে লিখেছেন, 'জয় হোক অদম্য নারী শক্তির, জয় হোক লাল-সবুজের।'

বিশিষ্ট চিত্রপরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী লিখেছেন, 'তোমরা সাফ চ্যাম্পিয়ন না হলেও আমাদের চোখে চ্যাম্পিয়নই থাকতা। সকল প্রকার মিসোজিনি, টীকা-টিপ্পনী, বাধা ডিঙায়ে যে পথ তোমরা চলছো, তাতে তোমরা প্রতিদিনেরই চ্যাম্পিয়ন।'
চলচ্চিত্র অভিনেত্রী জয়া আহসান 'বিউটি সার্কাস' সিনেমার পোস্টার শেয়ার করেছেন, যেটির ওপরে লেখা ছিল বঙ্গবন্ধুর ভাষণের সেই বিখ্যাত লাইন- 'দাবায়ে রাখতে পারবা না।'

কথাসাহিত্যিক আনিসুল হক ফাইনাল ম্যাচ ও জয় নিয়ে একাধিক পোস্ট দিয়েছেন। এক পোস্টে তিনি বাংলাদেশ দলের গোলরক্ষকের প্রশংসা করে লিখেছেন, 'রুপনা চাকমার মতো ভালো গোলকিপার আমি আর দেখি নাই। ফ্রি কিক সেইফটা অবিশ্বাস্য। তেমনি পজিশন সেন্স। এগিয়ে এসে ক্লিয়ার করা, ঠিক জায়গায় দাঁড়ানো। রিফ্লেক্স কী! হওয়া গোলটাও ডাইভ দিয়ে ঠেকিয়ে দিয়েছিল প্রায়।'

কথাসাহিত্যিক জাকির তালুকদার লিখেছেন, 'এখন থেকে যদি প্রতিটি স্কুলে, প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, প্রতিটি শহরে, প্রতিটি গ্রামে মেয়েদের ফুটবলসহ সকল খেলাধুলার চর্চা শুরু হয়, তাহলে বলা যাবে, বাংলাদেশে নারীমুক্তির একটি প্রাথমিক পর্যায় শুরু হলো।'

ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসান বিজয়ীদের উদ্দেশে লিখেছেন, 'আপনাদের নিখুঁত দৃঢ় সংকল্প, চেতনা এবং শক্তি সকলের হৃদয় জয় করেছে এবং অবশ্যই প্রত্যেককে অনুপ্রাণিত করবে বিশেষ করে নারীদের, একটি উন্নত বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্নের পেছনে ছুটতে!'
আরেক ক্রিকেট তারকা মুশফিকুর রহিম লিখেছেন, 'সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ের জন্য আমাদের প্রিয় বোনদের জানাই অনেক অভিনন্দন। আপনাদের সবাইকে নিয়ে সত্যিই গর্ব অনুভব করছি।'

জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক জামাল ভূঁইয়া লিখেছেন, 'চ্যাম্পিয়ন! সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে বাংলাদেশ ফুটবল দল নেপালকে হারিয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। মেয়েদের অভিনন্দন।'

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী চিরকুট ব্যান্ডের ভোকাল শারমিন সুলতানা সুমি লিখেছেন, 'চোখ ভেসে যায় জলে! কোথায় যেন মিলে যায় রে বোন।' এর সঙ্গে তিনি ফুটবলার সানজিদার বক্তব্য-সংবলিত একটি ছবি পোস্ট করেছেন।
অভিনেত্রী আজমেরী হক বাঁধন নারী ফুটবলারদের অভিনন্দন জানিয়ে একাধিক পোস্ট দিয়েছেন। গতকাল তিনি ক্রীড়াক্ষেত্রে পুরুষ ও নারী খেলোয়াড়দের বেতন বৈষম্য নিয়ে একটি পোস্ট দেন।
অভিনেতা শতাব্দী ওয়াদুদ লিখেছেন, 'অভিনন্দন ও ভালোবাসা জানাই তোমাদের প্রথমবারের মতো সাফ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য।'

রাষ্ট্রদূতদের শুভেচ্ছা :বাংলাদেশে সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি শুয়ার্ড টুইট বার্তায় বলেন, 'নারী ফুটবল দলের জন্য অত্যন্ত আনন্দিত। বিজয় উৎসবের জন্য অপেক্ষা করছি।'
বাংলাদেশে নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত অ্যান ভান লিউয়েন টুইট বার্তায় বলেছেন, 'চমৎকার কাজ করেছে বাংলাদেশে মেয়েরা।'

এ ছাড়া, ঢাকার ইউরোপীয় ইউনিয়নের দূতাবাস, ব্রিটিশ হাইকমিশন ও যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস পৃথক টুইটে বাংলাদেশের মেয়েদের শিরোপা জয়ে অভিনন্দন জানিয়েছে।

ফুটবল ফেডারেশনের 'বিলম্ব' : নারী ফুটবল দলের ফাইনাল ম্যাচ ঘিরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের কোনো পোস্ট দেখা যায়নি। এমনকি ঐতিহাসিক জয়ের পর যখন মেয়েদের প্রশংসায় ভাসছিল সবাই, তখনও তারা 'ঘুমিয়ে'। খেলা শেষ হওয়ার দুই ঘণ্টা পর অবশ্য তারা অভিনন্দন জানিয়ে বার্তা দেয়। এ নিয়ে ক্রীড়ামোদীদের নানা রকম সমালোচনা করতে দেখা যায়।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও ফেসবুক পেজে নারী দলকে অভিবাদন জানিয়েছে।


আরও পড়ুন

×