ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

ড্রেসিংরুমে হস্তক্ষেপ করছে না বিসিবি

ড্রেসিংরুমে হস্তক্ষেপ করছে না বিসিবি

মঙ্গলবার হোবার্ট থেকে সিডনি পৌঁছান সাকিব আল হাসানরা -বিসিবি

সিডনি থেকে, সেকান্দার আলী

প্রকাশ: ২৫ অক্টোবর ২০২২ | ১২:০০ | আপডেট: ২৫ অক্টোবর ২০২২ | ১৩:১৬

বাংলাদেশ দলের ক্রিকেট সংস্কৃতিতে হাওয়া বদলের চেষ্টা চলছে। এই প্রক্রিয়ার রূপকার সাকিব আল হাসান। অধিনায়কের টিম রুলসে অনাহূতদের প্রবেশাধিকার সীমিত। বিসিবি পরিচালকদেরও তাতে বাহুল্য চর্চার সুযোগ নেই। জাতীয় দল সূত্রে জানা গেছে, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজে দল বুঝে নেওয়ার পর থেকেই এ নিয়ম জারি করেছেন সাকিব। ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস, টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজনকেও প্রয়োজনের অতিরিক্ত কথা বলতে দেওয়া হয় না। কোচ শ্রীধরন শ্রীরাম ও সাকিবের নির্দেশনায় চলে দল। অধিনায়ক এই নিয়ম জারি করায় খুশি ক্রিকেটাররাও।

কে না জানে বাংলাদেশ দল নিয়ে কথা বলার লোকের অভাব নেই। সুযোগ পেলে বিসিবি কর্মকর্তারা টুকটাক পরামর্শ দিতে ভালোবাসেন। ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে জালাল ইউনুসের কথা বলার অধিকার থাকলেও ড্রেসিংরুমে সুশৃঙ্খল পরিবেশ বজায় রাখতে তিনি প্রয়োজনের বাইরে কথা বলছেন না। মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান তানভীর আহমেদ টিটুর কাছে সিডনিতে এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, 'কথা বলায় বারণ নেই। বোর্ডের কেউ কথা বলছে না ড্রেসিংরুমের পরিবেশ সুন্দর রাখার জন্য। ভালো একটা পরিবেশ থাকলে ক্রিকেটাররা ফোকাসে থাকতে পারে। বিশ্বকাপটা তারা ভালোভাবে খেলুক। খেলোয়াড়রা নিজেদের জগতে থাক সেটাই চায় বোর্ড।'

ক্রিকেটারদের জন্য কিছু নিয়ম করে দিয়েছেন সাকিব। বিশ্বকাপ চলাকালে নিজেদের মধ্যে কার্যক্রম সীমিত রাখার পরামর্শ দিয়েছেন সতীর্থদের। ক্রিকেটাররাও নেতার নির্দেশনা অক্ষরে অক্ষরে পালন করছেন। যে কারণে বাইরের কোনো ঘটনা দলের ভেতরে প্রবেশ করতে পারছে না। বিশ্বকাপ অভিযান স্বস্তি নিয়ে করতে পারছেন। ড্রেসিংরুমের বর্তমান পরিবেশ নিয়ে জানতে চাওয়া হলে জালাল ইউনুস বলেন, 'আমি দলের সঙ্গে যোগ দিয়েই দেখেছি ছেলেরা নিয়ম করে নিয়েছে নিজেদের গণ্ডির ভেতরে থাকবে। ওরা যেহেতু নিজেদের মতো করে থাকতে চায়, সেখানে হস্তক্ষেপ করা ঠিক হবে না। ক্রিকেটারদের যা কিছু বলার শ্রীরাম ও সাকিব বলে।'

এত দিন সবাই চুপ থাকলেও ক্রিকেটারদের সঙ্গে একান্তে কথা বলবেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। গতকাল সিডনিতে এসেছেন বোর্ড সভাপতি। আজ ক্রিকেটারদের সঙ্গে নৈশভোজে অংশ নেবেন তিনি। বোর্ড সভাপতিকে স্বাগত জানাতে অপেক্ষায় আছেন ক্রিকেটাররাও। যদিও টিম রুলসের বিষয়টি এখানেও বলবৎ থাকবে বলে জানান একজন কর্মকর্তা। কারণ পরের দিনই সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচ সাকিবদের। হোবার্টে পাওয়া জয়ের ছন্দ নিয়ে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে খেলবেন তাঁরা। হোবার্টের বেলেরিভ ওভালের মতো সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডও সাকিদের কাছে অচেনা। এই ভেন্যুতে এখনও কোনো ম্যাচ খেলার সুযোগ পাননি তাঁরা। টি২০ বিশ্বকাপ সে সুযোগ করে দিয়েছে টাইগারদের। তবে অচেনাকে জয় করতে পারলে ভালো কিছু আশা করা যায়। বাংলাদেশের ড্রেসিংরুমে সে চর্চাই হচ্ছে। সুপার টোয়েলভের গ্রুপ পর্বে ভালো ক্রিকেট খেলে ইতিহাস সৃষ্টি করতে চান সোহানরা। কুইনটন ডি ককদের বিপক্ষে তেমন কিছু হলে ভারত-পাকিস্তানকেও নড়েচড়ে বসতে হবে। যদিও কাজটি অত সহজ হবে না। এবিডি ভিলিয়ার্স আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অনেক আগে বিদায় নিলেও টি২০তে ঝড় তোলার মতো ব্যাটার রেখে গেছেন স্কোয়াডে। এত কিছুর পরও জাতীয় দলের সাবেক কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে পরামর্শ দিয়েছেন ক্রিকেটারদের স্বাধীনভাবে ম্যাচ খেলার সুযোগ করে দিতে।

আরও পড়ুন

×