স্বাগতিক বলেই এগিয়ে রাশিয়া

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০১৮     আপডেট: ১৪ জুন ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিশ্বকাপের বল মাঠে গড়ানোর জন্য প্রস্তুত। মঞ্চ সাজিয়ে প্রস্তুত রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়াম। প্রথম ম্যাচে এক অপরের প্রতিদ্বন্দ্বিতা  করবে রাশিয়া ও সৌদি আরব। ফুটবলীয় শক্তি-সামর্থ্যের বিচারে অন্য দলগুলোর তুলনায় যোজন যোজন পিছিয়ে দল দুটি।  তবে এই ম্যাচে রাশিয়াকে এগিয়ে রাখছেন অনেকে। সেটা অবশ্য দলীয় শক্তির কারণে নয় বরং ফুটবলীয় ঐতিহ্যের কারণে। কারণ ১৯৩০ থেকে শরু করে এখন পর্যন্ত উদ্বোধনী ম্যাচে হারের স্বাদ পায়নি আয়োজক দেশ।  

এখন পর্যন্ত ১৬টি দেশ ২০ বার বিশ্বকাপের আযোজন করেছেন। প্রথম ম্যাচে হারের স্বাদ পায়নি আয়োজক রাষ্ট্র। ধারণা করা হচ্ছে, রাশিয়াতেও এই ধারা বজায় থাকবে। এর বাইরে প্রথম ম্যাচে রাশিয়ার জয়ের আর কোনো কারণ নেই। ফিফার বর্তমান র‌্যাংকিং অনুযায়ী, সৌদি আরবের (৬৭) চেয়েও পিছিয়ে রাশিয়া (৭০)।

বিশ্বকাপে উদ্বোধনী ম্যাচে আয়োজক রাষ্ট্রের খেলার কোনো অমোঘ নিয়ম নেই। সেই কারণেই এ পর্যন্ত ২০ আসরে মাত্র নয়বারই আয়োজক দেশ উদ্বোধনী ম্যাচ খেলেছে। তাতে অবশ্য হারের রেকর্ড নেই আয়োজকদের। পরিসংখ্যানটা বরং বেশ হৃষ্টপুষ্ট। ৬টি ম্যাচ জিততে পেরেছে স্বাগতিক দল। ড্র হয়েছে তিনটি ম্যাচ। 

আয়োজক রাষ্টের আরেকটি সুনাম রয়েছে। আগের ২০টি আসরের ১৯বারই অন্তত প্রথম রাউন্ডের বাধা পার করে স্বাগতিক দেশ। ব্যতিক্রম কেবল দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০১০ বিশ্বকাপে প্রথম রাউন্ড থেকেই ছিটকে পড়ে প্রোটিয়ারা। সেই আসরে উদ্বোধনী ম্যাচে মেক্সিকোকে ঠেকিয়ে দেয় তারা। 

রাশিয়ার সাম্প্রতিক ফলাফল মোটেও সন্তোষজনক নয়। গত সাত ম্যাচে জয়ের দেখা পায়নি দলটি। বিশ্বকাপেও পরিসংখ্যাটা ভালো নয় স্বাগতিকদের। বিশ্ব আসরের সর্বশেষ পাঁচ ম্যাচে তিনটিতেই হেরেছে তারা। ড্র হয়েছে বাকি দুটো ম্যাচ।