কারানের খেলার কথা ছিল জিম্বাবুয়ের হয়ে!

প্রকাশ: ০৩ আগস্ট ২০১৮     আপডেট: ০৩ আগস্ট ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: ফাইল

এজবাস্টন টেস্টে দামি চার উইকেট নিয়ে ভারতকে গুড়িয়ে দিয়েছেন ২০ বছরের তরুণ স্যাম কারান। অথচ তার বাবা ছিলেন জিম্বাবুয়ের সাবেক ক্রিকেটার। তবে দু্ই ভাই স্যাম কারান এবং টম কারান ইংল্যান্ডের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে ফেললেন। 

জিম্বাবুয়ের কেভিন কারান ১৯৮৩ সালে ওয়েলসে প্রুডেনশিয়াল বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে দারুণ এক অলরাউন্ড পারফর্মের কারণে বিশেষ খ্যাতি পান। বল হাতে ৩ উইকেট নেওয়ার পর ব্যাট হাতে করেন ৭৩ রান। তবে ভারতীয় অধিনায়ক কপিল দেব ক্যারিয়ার সেরা ১৭৫ রান করে ম্যাচটা নিজের করে নেন। 

বাবা কেভিন জিম্বাবুয়ের হয়ে খেললেও কারান ভাইরা ইংল্যান্ডের হয়ে খেলেন কেনো? এর পেছনে থেকে কলকাঠি নেড়েছেন ইংল্যান্ডের সাবেক ক্রিকেটার অ্যালান ল্যাম্ব। একসঙ্গে নর্দাম্পটনশায়ারে খেলারে সুবাদে কারানের বাবার বন্ধু ছিলেন তিনি। বাবার খেলার সুবাদে তাই ইংল্যান্ডে বেড়ে ওঠা তাদের। 

এছাড়া কারান সিনিয়র ২০১২ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। তখন কারান পরিবারের পাশে দাঁড়ান ল্যাম্ব। বড় ভাই টম ইংল্যান্ডে পড়াশুনা করতেন। সেই সুবাদে ছোট ভাইদেরও ইংল্যান্ডে থাকার ব্যবস্থা করলেন তাদের বাবার বন্ধু ল্যাম্ব। এরপর স্যাম কারানের বড় ভাই টম কারাম ইংল্যান্ড দলে সুযোগ পাওয়ার পর সুযোগ চলে আসে স্যামের সামনেও। 

এজবাস্টনে ইংল্যান্ডের ১০০০তম টেস্টে জায়গা পেয়েই স্যাম বাঁহাতি পেস আর সুইংয়ের পসরা সাজিয়েছেন। শুরুর তিন উইকেট নিয়ে একাই ধসিয়ে দেন ভারতকে। কনিষ্ঠতম ক্রিকেটার হিসেবে ইংল্যান্ডের হয়ে টেস্টের এক ইনিংসে ৪ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড গড়েছেন তিনি। 

স্যাম কারানকে নিয়ে ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক ও সারের ডিরেক্টর অফ ক্রিকেট অ্যালেক স্টুয়ার্ট বলেন, ১৭ বছর বয়সে স্যাম কারানের মতো ক্রিকেট-প্রতিভা ইংল্যান্ডের আর কারও মধ্যে দেখিনি আমি। এছাড়া তিনি দারুণ ব্যাট চালান বলেও জানান তিনি।