ঢাকা শনিবার, ২৫ মে ২০২৪

ক্লাবের টানাটানিতে নিলামে এলিট ফুটবলাররা

ক্লাবের টানাটানিতে নিলামে এলিট ফুটবলাররা

ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রকাশ: ০৪ আগস্ট ২০২৩ | ১৮:০০

ঘরোয়া ফুটবলের দলবদলে স্থানীয় খেলোয়াড়রা দাম হাঁকাচ্ছেন আকাশচুম্বী। গত মৌসুমে ছয় লাখে খেলা ফুটবলার নতুন মৌসুমের জন্য চাচ্ছেন ৪০ লাখ। আর দু-তিনটি ক্লাব জাতীয় দলের ফুটবলারদের সঙ্গে চুক্তি সেরে ফেলায় খেলোয়াড় সংকটও দেখা দেয়। এমন অবস্থায় বাফুফে এলিট একাডেমির ফুটবলারদের দিকে হাত বাড়ায় মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র এবং ব্রাদার্স ইউনিয়ন। তিন ক্লাবের আবেদনে ফুটবলার সংখ্যা গিয়ে দাঁড়ায় ২২। এলিট একাডেমির ফুটবলারকে পেতে ক্লাবগুলোর প্রস্তাব ছিল ৬ লাখের একটু বেশি। তাই শুক্রবার ফেডারেশন ভবনে একাডেমির ফুটবলারদের কোন কোন ক্লাবে দেওয়া যায়, সেটা নিয়ে মিটিংয়ে বসে বাফুফে ডেভেলপমেন্ট কমিটি।

কিন্তু গতকাল এটা নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে না পারায় এখন একাডেমির ফুটবলারদের নিলামে তুলবে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। ভিত্তিমূল্য চূড়ান্ত করে খুব শিগগির রাজধানীর একটি পাঁচতারকা হোটেলে ২০ জনের মতো খেলোয়াড়কে নিলামে তোলা হবে বলে গতকাল সভা শেষে জানান বাফুফে ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ভূঁইয়া মানিক, ‘একাধিক ক্লাব আমাদের একাডেমির ফুটবলার চাচ্ছে। সে জন্য আমরা ক্লাবগুলোকে আলোচনার মাধ্যমে না দিয়ে ওপেন বিডিংয়ের মাধ্যমে ফুটবলারদের দেব। যারা সর্বোচ্চ টাকা দেবে, তাদের এই প্লেয়ারগুলোকে লোনে দেব। এটাই আজকে (শুক্রবার) আমাদের সিদ্ধান্ত হয়েছে।’

সারা বিশ্বে ফুটবলার গড়ার কাজটি করে থাকে মূলত ক্লাবগুলো। নিজস্ব একাডেমি গড়ে তারা নতুন নতুন ফুটবলারের জন্ম দেন। কিন্তু বাংলাদেশে এই দায়িত্ব পালন করছে ফুটবল ফেডারেশন। দুই বছর আগে যে উদ্দেশ্য নিয়ে একাডেমি করেছে বাফুফে, তার সুফল এখন পাচ্ছে দেশের ফুটবল। ২০২১ সালে শুরু হওয়া বাফুফের এলিট একাডেমিতে এখন পর্যন্ত ৬৩ ফুটবলার রয়েছেন। যার মধ্য থেকে ২০ জনের মতো ফুটবলার উঠতে পারেন নিলামে। গত বছর ফুটবলার বিক্রি করে অল্প কিছু অর্থ আয় করেছে ফেডারেশন। এবার তিন ক্লাবের চাহিদায় বাফুফের আয়ও বাড়বে। যদিও এসব নিয়ে মুখ খুলতে নারাজ মানিক।

যেহেতু নিলামে ওঠানো হবে ফুটবলারদের, সেহেতু মোহামেডান, শেখ রাসেল এবং ব্রাদার্সের সঙ্গে অন্য ক্লাবের জন্যও উন্মুক্ত থাকছে বিডিং। ‘তিন ক্লাব আনুষ্ঠানিক চিঠি দিলেও বাকি ক্লাবগুলো আগ্রহী থাকলে বিডিংয়ের দিন অংশ নিতে পারবে। বেস প্রাইস ও আরও কিছু বিষয় নিয়ে আমরা কয়েক দিন কাজ করব। এর পর একটি নির্দিষ্ট দিনে নিলাম অনুষ্ঠিত হবে।’

আরও পড়ুন

×