মরণ কামড় দিতে টানটনে মাশরাফিরা

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০১৯      

সঞ্জয় সাহা পিয়াল, টানটন থেকে

ছবি: বিসিবি

অ্যাভন নদীর পাশে যেমন ব্রিস্টল। টন নদীর তীরে তেমনি টানটন। দুই নদীর পাশে থাকা দুই মাঠের নামে বড় মিল। দুটোই কাউন্টি গ্রাউন্ড নামে পরিচিত। এই কাউন্টি গ্রাউন্ডে সোমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হবেন মাশরাফিরা। ব্রিস্টল থেকে তাই টানটনে পৌছেছে টাইগাররা।

বাংলাদেশ দল বললে অবশ্য ভুল হবে। কারণ সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, লিটন দাস, সাব্বির রহমান এবং মোহাম্মদ মিঠুন টানটন নয় গেছেন ব্রিস্টল থেকে লন্ডনে। টিম ম্যানেজমেন্টের থেকে দু'দিনের ছুটি মিলেছে এই পাঁচ জনের। বাংলাদেশের পরবর্তী ম্যাচের যেহেতু কিছু সময় বাকি আছে। মন ঝরঝরে রাখতে তাই তাদের ছুটি মঞ্জুর করা হয়েছে।

দলের বাকি সদস্যরা স্থানীয় সময় বেলা চারটায় টানটনে পৌছান। তারা সেখানকার হলিডে ইনে ওঠেন। দুই দিনের ছুটি কাটিয়ে লিটন-মিঠুনরাও উঠবেন এই হোটেলে। বাংলাদেশ পরবর্তী ম্যাচ খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। যারা কিনা সরাসরি বিশ্বকাপে জায়গা পায়নি। খেলতে হয়েছে বাছাইপর্ব। আবার ওয়ানডে দলের তালিকায় বাংলাদেশের পেছনে তারা। আয়ারল্যান্ডে জেসন হোল্ডারদের হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজ জয়ও টাটকা।

তবে বিশ্বকাপের ওয়েস্ট ইন্ডিজ আলাদা দল। পাকিস্তানকে তারা উড়িয়ে দিয়েছে বোলিং লাইন আপ দিয়ে। অস্ট্রেলিয়াকে শুরুতে কাঁপিয়ে দেয় তাদের পেসাররা। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও দুর্দান্ত শুরু করেন শেলডম কটরেল-কেমার রোচরা। টানটনে বাংলাদেশের আরেকটি ভয় তাই সেখানকার ছোট মাঠ এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের হার্ড হিটাররা।

ক্যারিবিওরা বড় বড় শট খেলতে অভ্যস্ত। তাদের দলে ক্রিস গেইল, শাই হোপ, সিরমন হেটমায়ার কিংবা আন্দ্রে রাসেলদের মতো বিগ হিটার আছেন।  এছাড়া এই মাঠে রানও ওঠে অনেক। এই মাঠে 'প্রিন্স অব ক্যালকাটা' খ্যাত সৌরভ গাঙ্গুলি ১৮৩ রানের ইনিংস খেলেন। রাহুল দাব্রিড়ের সঙ্গে ১৯৯৯ বিশ্বকাপে গড়েন ৩১৮ রানের বিশ্বকাপের রেকর্ড জুটি। যদিও রেকর্ডটা গেইল এবং স্যামুয়েলস ২০১৫ বিশ্বকাপে ভেঙে (৩৭২) দেন।  বাংলাদেশের সামনেও তাই ক্যারিবিওরা চোখ রাঙাবেন। তবে বড় আসরে অতসত ভাবতে গেলে হয় নাকি!