ডমিঙ্গোর ইন্টারভিউ, অপেক্ষায় আরও দুই

প্রকাশ: ০৮ আগস্ট ২০১৯       প্রিন্ট সংস্করণ     

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছিলেন, ১০ দিনের মধ্যেই জাতীয় দলের প্রধান কোচ নিয়োগ দিতে চান। কোচ নিয়োগের সে প্রক্রিয়া শুরু করলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর সাক্ষাৎকারের মধ্য দিয়ে। গতকাল বিকেলে ধানমণ্ডিতে পাপনের কর্মস্থল বেক্সিমকো ফার্মার অফিসে প্রেজেন্টেশন দেন তিনি। ডমিঙ্গো সাক্ষাৎকার দিতে সকাল ১১টায় ঢাকা এসে পৌঁছান।

বৃহস্পতিবার আবার চলে যাওয়ার কথা তার। বিসিবি পরিচালক ইসমাইল হায়দার মল্লিক জানান, ডমিঙ্গো ছাড়াও তিনজন কোচের কাছ থেকে আবেদন পেয়েছেন তারা। তাদের মধ্যে জাতীয় দলের একজন সাবেক কোচও আছেন। এই সাবেক কোচ জেমি সিডন্সের নাম শোনা যাচ্ছে। তবে এই সাবেক কোচকে সাক্ষাৎকারে নাও ডাকা হতে পারে। বিসিবির একাধিক কর্মকর্তা সমকালকে জানান, আর দু'জনের সাক্ষাৎকার ও প্রেজেন্টেশন নেওয়া হবে।

বিসিবির মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেন, 'রাসেল ডমিঙ্গো সাক্ষাৎকার দিয়ে গেছেন। তিনি বাংলাদেশ ক্রিকেট নিয়ে কী চিন্তা করেন, এ বিষয়ে তার ভাবনা পরিবেশন করেছেন। কীভাবে উনি কাজ করতে চান, পারফরম্যান্স কীভাবে হবে; সবকিছু নিয়ে উনার সঙ্গে কথা হয়েছে। আমি বলব, এটা বিসিবির জন্য সন্তোষজনক ছিল।'

ডমিঙ্গোর কোচিং ক্যারিয়ার শুরু হয় ২২ বছর বয়স থেকে। ২৫ বছর বয়সে দক্ষিণ আফ্রিকার ইস্টার্ন প্রদেশের যুব দলের কোচ হন তিনি। ঘরোয়া ক্রিকেটে কাজ করে অভিজ্ঞতা অর্জন করেন। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকা একাডেমি, অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ দল, দক্ষিণ আফ্রিকা 'এ' দল এবং জাতীয় দলের কোচ হন তিনি। ২০০৪ সালে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকা দল নিয়ে এসেছিলেন ডমিঙ্গো। ২০১০ সালে প্রোটিয়া 'এ' দল নিয়ে বাংলাদেশ সফর করেন তিনি।

২০১১ সালে দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলের সহকারী কোচ হিসেবে নিয়োগ পান ডমিঙ্গো। পরের বছর দেশটির টি২০ দলের প্রধান হন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলের সঙ্গে প্রায় পাঁচ বছর কাজ করেন। বর্তমানে দেশটির 'এ' দলের প্রধান কোচ তিনি। বিশ্বকাপজয়ী কোচ গ্যারি কারস্টেনের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা আছে ডমিঙ্গোর। সবচেয়ে বড় কথা, বাংলাদেশের ক্রিকেট সম্পর্কে ভালো ধারণা রয়েছে তার। সেই ২০১১ সাল থেকেই বাংলাদেশ দলের কোচ হওয়ার ব্যাপারে আগ্রহ দেখাচ্ছেন ডমিঙ্গো। ব্যাটে-বলে মিলে গেলে সে স্বপ্ন পূরণ হতেও পারে। যদিও তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আরও দু'জন কোচের সাক্ষাৎকার নেবে বিসিবি।

জালাল ইউনুস জানান, তাদের তালিকায় থাকা তিনজন কোচের মধ্য থেকেই একজনকে নিয়োগ দেবেন সাকিব আল হাসানদের প্রধান কোচ হিসেবে। তিনি বলেন, 'আমাদের হাতে যে তিনজন আছেন, তাদের সবারই জাতীয় দলে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে। তারা কে কোথায় কাজ করেছেন, এ মুহূর্তে সেটা বলতে পারছি না।' নতুন কোচ যেই হন, আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টেস্ট ম্যাচ দিয়ে কাজ শুরু হবে তার।

তবে বাকি দুই কোচ কবে সাক্ষাৎকার দিতে আসবেন বিসিবি থেকে গতকাল তা নিশ্চিত করতে পারেনি। পরিচালক ইসমাইল হায়দার মল্লিক জানান, 'কোচদের আমরা জানিয়ে রেখেছি। তারা টিকিট কেটে বিমানে ওঠার আগে আমাদের জানালে সাক্ষাৎকার নেওয়ার জন্য প্রস্তুত হই।'