মেসিও বাঁচাতে পারলেন না বার্সাকে

প্রকাশ: ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: মার্কা

বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়নস লিগের ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমেও দলকে জেতাতে পারেননি লিওনেল মেসি। লা লিগায়ও দলকে বাঁচাতে পারেননি তিনি। গ্রানাডার মাঠে ২-০ গোলে হেরেছে বার্সেলোনা। পাঁচ ম্যাচে সাত পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট টেবিলে আছে সাতে। সমান ম্যাচ খেলে গ্রানাডা এবং অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদের পয়েন্ট ১০। দুইয়ে থাকা সেভিয়া চার ম্যাচ থেকে তুলে নিয়েছে ১০ পয়েন্ট। এক ম্যাচ কম খেলে রিয়ালের পয়েন্ট ৮। বার্সেলোনার লিগে ২৫ বছরের মধ্যে এটাই সবচেয়ে বাজে শুরু।

১৯৯৪-৯৫ মৌসুমেও বার্সা ঠিক এমনই শুরু করেছিল। পাঁচ ম্যাচ শেষে সেবারও দুই হার, দুই জয় এবং ড্রতে টেবিলে পয়েন্ট ছিল পাঁচ। বার্সা এই পাঁচ ম্যাচ থেকে হজম করেছে নয় গোল। পয়েন্ট টেবিলে সেরা দশে থাকা আর কোন দল এতো গোল খায়নি। ম্যাচের দুই মিনিটের মাথায় গোল খায় বার্সা। দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নামেন মেসি। কিন্তু ইনজুরি থেকে ফেরা মেসি সেরা ফর্মে এখনও ফেরেননি সেটা আবারও দেখা গেল। তিনি দলকে বাঁচাতে পারেননি। উল্টো ৬৬ মিনিটে গোল খেয়ে সহজে বার্সার হার নিশ্চিত হয়।

ম্যাচ শেষে বার্সার উরুগুয়ে স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ বলেন, 'এই হার আমাদের জন্য খুবই উদ্বেগের। কষ্টের। অনেক বিষয়ই এখন আমাদের খুব কাছ থেকে বিচার করে দেখতে হবে। নিজেদের খেলার দিকে নজর দিতে হবে। উন্নতির জায়গা আছে কি-না খুঁজে বের করতে হবে। শুরুতেই গোল খেয়ে পিছিয়ে পড়লে যে কোন দলের জন্য কাজটা কঠিন হয়ে যায়।'

দলের এমন হারে বার্সা কোচ ভালভার্দে চিন্তিত। বার্সার এমন বাজে ফুটবল প্রদর্শনী আরও কয়েক ম্যাচে চললে চাকরি নিয়ে টানাটানি পড়ে যাবে ভালভার্দের। তিনি তাই দলের হারে চিন্তিত বলে জানান। বার্সা যেভাবে খেলেছে তাতে তারা জয় প্রত্যাশা করে না বলেও উল্লেখ করেন ভালভার্দে, 'আমরা কতৃত্ব করে খেলেছি। কিন্তু গোল করার মতো সুযোগ তৈরি করতে পারিনি। চারটি অ্যাওয়ে ম্যাচ খেলে একটিতেও ভালো করতে পারিনি আমরা। আমরা চেষ্টা করবো দলের খেলায় উন্নতি আনতে।'