সৌরভের সুবাস বিসিবিতেও

প্রকাশ: ১৫ অক্টোবর ২০১৯       প্রিন্ট সংস্করণ     

ক্রীড়া প্রতিবেদক

ছবি: ফাইল

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি পদের জন্য একমাত্র প্রার্থী দেশটির সাবেক অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলী। তাই বোর্ড অব ক্রিকেট কন্ট্রোল ফর ইন্ডিয়ার (বিসিবিআই) সভাপতি হিসেবে পশ্চিমবঙ্গের এই তারকার নাম ঘোষণা করা সময়ের ব্যাপার। বাঙালি ছেলে বিসিসিআইর সভাপতি হলে বাংলাদেশ-ভারতের ক্রিকেটীয় সম্পর্ক আরও জোরদার হবে বলে মনে করেন বিসিবি কর্মকর্তারা। এরই মধ্যে সৌরভকে অনানুষ্ঠানিক অভিনন্দনও জানিয়েছেন ঢাকার ক্রিকেট কর্মকর্তারা।

বিসিসিআই নতুন কমিটি নির্বাচনে ভোট হবে আগামী ২৩ অক্টোবর। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হলে বাংলাদেশের ভারত সফরের আগেই দায়িত্ব বুঝে নিতে পারেন সৌরভ। সেটা হলে বাংলাদেশের ক্রিকেটের আরও একটি ঐতিহাসিক ঘটনার সঙ্গে জড়িয়ে থাকবে তার নাম। বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে ভারতের অধিনায়ক ছিলেন সৌরভ। ক্রিকেটের ইতিহাসে দুই বাঙালি অধিনায়ক নিজ নিজ দেশের নেতৃত্ব দিয়েছেন। এবার সৌরভের নতুন অভিষেকে বাংলাদেশ ভারতে খেলবে দ্বিপক্ষীয় সিরিজ তিনটি টি২০ ও দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। ৩ থেকে ২৬ নভেম্বর হবে খেলাগুলো।

টাইগারদের সফর শুরু হবে দিল্লি থেকে, শেষ করবে পশ্চিমবঙ্গে সৌরভের হোম ভেন্যুতে। বিসিসিআইর সম্ভাব্য সভাপতিকে অগ্রিম অভিনন্দন জানিয়ে বিসিবি পরিচালক আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি যেমন বললেন, 'বাংলাদেশের ক্রিকেটকে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড সব সময়ই সাপোর্ট করে এসেছে। টেস্ট মর্যাদা পেতে ভারতের অবদান অনস্বীকার্য। আমি মনে করি, সৌরভ বিসিসিআইর সভাপতি হলে বিসিবির সঙ্গে সম্পর্ক আরও গভীর হবে। কারণ সে একজন বাঙালি এবং বাংলাদেশের বন্ধু। প্রত্যাশার দাবি নিয়েই তার কাছে যেতে পারবে বিসিবি।'

বাঙালি ছেলের বাংলাদেশের প্রতি টান থাকাটা স্বাভাবিক। সেই খেলোয়াড়ি জীবন থেকেই ঢাকায় আনাগোনা সৌরভের। বাংলাদেশের ক্রিকেট কর্মকর্তাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক রয়েছে দুই দশক। যে কারণে সিএবির সঙ্গে বয়সভিত্তিক দলের সিরিজ আদান-প্রদান করে বিসিবি। এই সম্পর্কের জোর থেকে সৌরভের কাছে বিসিবি কর্মকর্তাদের প্রত্যাশা একটু বেশি। বিসিবি মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস যেমন বলছেন, 'সেও বাঙালি আমরাও বাঙালি, আগের চেয়ে কথা বলায় সুবিধা হবে। যেসব দ্বিপক্ষীয় সিরিজ হতো না, এখন সেগুলো করার একটা সুযোগ থাকবে। বাংলাদেশে আগে থেকেই যাতায়াত আছে তার। সম্পর্কের সুবিধাটা আমরা নিতে চেষ্টা করব।'

ভারতের ক্রিকেটের সম্ভাব্য নতুন সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী হওয়ায় খুশি বিসিবি পরিচালক ও প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয়। তিনি বলেন, 'একজন ক্রিকেটার সভাপতি হবে এটাই স্বাভাবিক। সৌরভ ভারতীয় বোর্ডের সভাপতি হওয়ায় আমি খুশি। সে দায়িত্ব নেওয়ার পর এবং ক্রিকেটীয় পদক্ষেপগুলো দেখার পরই বুঝতে পারব বাংলাদেশের জন্য কতটা ভালো হবে। তবে যাই হোক, সৌরভকে আমার অভিনন্দন।'

বাংলাদেশের ক্রিকেটের পরীক্ষিত বন্ধু ভারত। বিসিসিআই সব সময় বিসিবিকে সমর্থন দিয়ে এসেছে বলে জানান পরিচালক মাহাবুবুল আনাম, 'বিসিবিকে সব সময় সমর্থন দিয়ে এসেছে বিসিসিআই। যে বা যারাই বিসিসিআই সভাপতি ছিলেন তারা বিসিবির পাশে ছিলেন। সৌরভ গাঙ্গুলী সভাপতি হলে তাকেও আমরা পাশে পাব।' সৌরভ সভাপতি হবেন ১০ মাসের জন্য। এই সময়ে সাকিব আল হাসানরা একবারই খেলতে যাবেন।